প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

পরীক্ষামূলক ইভিএম ফলপ্রসূ হলে পরবর্তী সিদ্ধান্ত: সিইসি

জুয়াইরিয়া ফৌজিয়া: প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদা বলেছেন, জনগণের মধ্যে ইভিএমের গ্রহণযোগ্যতা কতটুকু তা দেখার জন্য রংপুরে সিটি করপোরেশন নির্বাচনের ভোটগ্রহণে পরীক্ষমূলকভাবে একটি কেন্দ্রে ইভিএম পদ্ধতি ব্যবহার করা হচ্ছে। যদি ইভিএমের গ্রহণযোগ্যতা পায় তবে পরবর্তীতে সময়ে ইভিএম পদ্ধতি ব্যবহার ‍বিষয়ে সিদ্ধান্ত ও ব্যবহারের পরিবেশ তৈরি করা হবে। এ বিষয়ে রাজনৈতিক দলগুলোর আস্থা তৈরি করতে পারবো বলেও আশা করছি।

রংপুর সিটি করপোরেশন নিয়ে বিবিসি বাংলার এক সাক্ষাৎকারে নির্বাচন কমিশনের প্রধান নির্বান কমিশনার এসব কথা বলেন।

রসিক সিটি করপোরেশন নির্বাচনকে সিইসি আদর্শ বা মডেল নির্বাচন হিসেবে বর্ণনা করছেন। কোন অর্থে রংপুরের আজকের নির্বাচনকে একটি আদর্শ বলা হচ্ছে?

সিইসি বলেন, ভোটারদের নিশ্চয়তা দিতে চাই, যেন তারা নির্বিঘ্নে ভোট কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দিতে পারে। পাশাপাশি আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখা হবে।

ভোটগ্রহণ নির্বঘ্ন করতে কী কী কার্যকারী ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে?

প্রশ্নের জবাবে নুরুল হুদা বলেন, কেন্দ্রগুলোতে ভোটাররা যাতে ঝামেলামুক্তভাবে ভোট দিতে পারে সেভাবেই নিরাপত্তা ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। এইজন্য র‌্যাব, পুলিশ, আনসার, বিজিবি মোতায়েন করা হয়েছে। এছাড়া কেন্দ্রগুলোতে দুই ধরণের ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ করা হয়েছে। তারমধ্যে একটি বিচারিক ম্যাজিস্ট্রেট আর অন্যটি নির্বাচনী ম্যাজিস্ট্রেট।

ইভিএম পদ্ধতিতে ভোটগ্রহণ সম্পর্কে নরুল হুদা বলেন, ইভিএম পদ্ধতি পরীক্ষামূলকভাবেই ব্যবহার করা হচ্ছে। অনেক দিন ধরে এটি ব্যবহার করা হয়নি আর এটি কিভাবে কাজ করে এবং জনগণের মধ্যে এটির গ্রহণযোহ্যতা কতটুকু সেটি দেখার জন্য। এবছর জাতীয় নির্বাচনে ইভিএম পদ্ধতি ব্যবহার করবো না। তবে এই পদ্ধতি আমরা স্থানীয় সরকার গঠনে ব্যবহারের চেষ্টা করবো এবং এই বছর যদি এই পদ্ধতি গ্রহণযোগ্যতা পায় তাহলে পরবর্তী পর্যায়ে যেন এটি ব্যবহার করা যায় সেরকম একটি পরিবেশ তৈরি করবো।

রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে ইভিএম পদ্ধতি ব্যবহারের মাধ্যমে কতটুকু আস্থা তৈরি পারবেন বলে আশা করছেন?

জবাবে তিনি বলেন, আমার মনে হয় রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে আস্থা তৈরি করতে পারবো। এখনো পর্যন্ত কোনো রাজনৈতিক দল দুই বছরের প্রক্রিয়া পদ্ধতিতে নিয়ে কোনো প্রশ্ন করতে পারেনি। তবে এ পদ্ধতির ব্যবহার নিয়ে বিএনপি কিছুটা সংশয়গুলো দেখেছি, যা সবগুলো ঠিক না। তারা আরও বলে সকলের জন্য নির্বাচনে সমান সুযোগ হয় না, এটাও ঠিক না।

আগামী জাতীয় নির্বাচনে সবগুলো দলের অংশগ্রহণ থাকবে বলে মনে করছেন?

জবাবে তিনি বলেন, আমি আশা করছি সবগুলো দল জাতীয় নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে। আর আমরা স্থানীয় পর্যায়ের নির্বাচনকে যে সুষ্ঠু এবং গ্রহণযোগ্যভাবে নিয়ে যাচ্ছি সেটি  বলা যায় আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পূর্ব প্রস্ততি।

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত