প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বিমানবালাদের আবেদনময়ী পোশাকের জন্য সমালোচনায় মালয়েশিয়ার বিমানসংস্থা

লিহান লিমা: বিমানবালাদের আবেদনময়ী পোশাকের জন্য সমালোচনার মুখে পড়ল মালয়েশিয়ার কয়েকটি বিমান সংস্থা। মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ এই দেশটির ক্ষমতাসীন দলের দুই রাজনীতিবিদ ‘এয়ারএশিয়া, মালিন্দো, ফায়ারফ্লাই’ নামের বিমান সংস্থাগুলোর সমালোচনা করেন।

দেশটির গণমাধ্যম দ্য নিউ স্ট্রেইট টাইমসের খবরে বলা হয়, দেশটির সিনেটর আবদুল্লাহ মাত ইয়াসিম বলেন, ‘এয়ারলাইন্সটির নারী বিমানবালাদের পোশাক অতি আবেদনময়ী, এই ধরণের পোশাক যাত্রীদের মধ্যে উত্তেজনাকর অনুভূতি সৃষ্টি করতে পারে। এবং এই ধরনের পোশাক মুসলিম দেশ হিসেবে মালয়েশিয়ার প্রতিনিধিত্ব করে না।’ পার্লামেন্টে তিনি মালয়েশিয়ার এভিয়েশন কমিটিকে বিষয়টি খতিয়ে দেখার জন্য আহ্বান জানান।

আরেক সিনেটর মেগাত জুলকারনাইন ওমরদিন তার সঙ্গে একমত হয়ে বলেন এই বিমান সংস্থাটির পোশাকের ডিজাইনে পরিবর্তন আনা উচিত। তিনি মজা করে বলেন, ‘যখন আমি মালিন্দো বা এয়ার এশিয়াতে ভ্রমণ করি আমার স্ত্রী উদ্বিগ্ন হয়ে পড়ে। এটি সত্যিই বিব্রতকর।’

সিনেটর আবদুল্লাহ বলেন, অতিরিক্ত আঁটসাট ব্যতিত মালিন্দো এয়ারের পোশাকে আর কোন সমস্যা নেই। এটি কিছুটা গ্রহণযোগ্য, স্পর্শকাতর অঙ্গগুলো তাদের পোশাকে ঢাকা পড়ে। কিন্তু ফায়ার ফ্লাই এবং এয়ার এশিয়া তার ধারেকাছেও নেই।’

দেশটির সংসদের উচ্চকক্ষের ডেপুটি প্রধানমন্ত্রী দেওয়ান নাগারা বিষয়টি সংসদে উত্থাপনের জন্য দুই সিনেটরকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, ‘এটি একটি ভাল পর্যালোচনা কারণ আমাদের বেশিরভাগ জনগণ এই সেবা গ্রহণ করে থাকে।’

উল্লেখ্য, এই প্রথমবারের মত মালয়েশিয়ার পার্লামেন্টে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হয় নি। এর আগে গত সপ্তাহে দেশটির সিনেটর হানাফি মামাত বলেন, মালয়েশিয়া একটি মুসলিম দেশ। তাই বিমানবালাদের পোশাকও শরীয়া আইন মোতাবেক হওয়া উচিত। তা না হলে পর্যটকরা মালয়েশিয়ার মূল্যবোধ ও পোশাকের সংস্কৃতি সম্পর্কে ভুল ধারণা লাভ করবে। তাছাড়া এই পোশাক অত্যন্ত আবেদনময়ী ও অসম্মানজনক।
প্রসঙ্গত এয়ার এশিয়ার নারী বিমানবালাদের পোশাক বড় গলার সাদা শার্ট, লাল জ্যাকেট এবং মধ্য দৈর্ঘ্যরে স্কাট যার একপাশ কাটা। ফায়ার ফ্লাই এর পোশাক আটসাট কমলা রঙ্গের এর দৈর্ঘ্য উরু পর্যন্ত ও এক হাঁটুর পাশে কাটা। অন্যদিকে মালিন্গেদার পোশাক আটসাট সাদা কার্ডিগান এবং গোড়ালি ছোঁয়া গোলাপি স্কার্ট।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত