প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

নতুন করে বাংলাদেশি হিন্দুদের নাগরিকত্ব দেবে না ভারত

হিরন্ময় ভট্টাচার্য, গুয়াহাটি: ধর্মীয় নির্যাতনের শিকার হয়ে বাংলাদেশের সংখ্যালঘু হিন্দুরা ইতোমধ্যে যারা ভারতে আশ্রয় নিয়েছেন, তাদের নাগরিকত্ব দিতে চাইছে বিজেপি সরকার। তবে বাংলাদেশ থেকে নতুন করে কাউকে ভারতে নিয়ে আসার কথা বলা হচ্ছে না। এ ব্যাপারে বিজেপির অবস্থানও খুবই স্পষ্ট।

ভারতের জাতীয় নাগরিক পঞ্জি বা এনআরসি নবায়ন প্রক্রিয়ায় উদ্বাস্ত হিন্দু বাংলাদেশিদের নিয়ে যে শঙ্কা তৈরি হয়েছে, তা দূর করা এবং এই বৃহৎ সংখ্যক লোকের ভবিষ্যতের প্রশ্ন নিয়ে আসামের বরাক উপত্যকা থেকে বিজেপির এক প্রতিনিধি দল বৃহস্পতিবার দিল্লি যাচ্ছে। এই বিষয়ে আসামের বিজেপির বর্ষীয়ান নেতা ও সাবেক মন্ত্রী কবীন্দ্র পুরকায়স্থ জানিয়েছেন,কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ হিংসের সঙ্গে দেখা করে এ বিষয়ে আলোচনা করবো।

তিনি জানান, ইতোমধ্যেই তার সঙ্গে রাজনাথ সিংহের কথা হয়েছে। কেন্দ্রীয় আইনমন্ত্রী রবিশংকর প্রসাদের সঙ্গেও আলোচনা হবে। এই প্রতিনিধি দলের নেতৃত্বে প্রদেশ বিজেপির সভাপতি রঞ্জিত দাস থাকবেন। সবার দাবি থাকবে সিলেক্ট কমিটির সুপারিশ যেহেতু সংসদে জমা পড়েনি, তাই ২০১৫ সালের ৭ সেপ্টেম্বরের সেই নোটিফিকেশনকেই অর্ডিন্যান্স করে আসামে আগত বাংলাদেশি সংখ্যালঘুদের সুরক্ষা দেওয়া হোক।

কবিন্দ্র পুরকায়স্থ জানান, বাংলাদেশের সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তা দিতে কেন্দ্রীয় সরকারের এই নোটিফিকেশন সারা ভারতে প্রযোজ্য। কিন্তু আসামে এটি অচল। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ছাড়াও দল সভাপতি অমিত শাহের কাছেও এই বিষয়টি তুলে ধরা হবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত