প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

টঙ্গীতে ছাত্রলীগের কমিটিতে ছাত্রদল নেতা হত্যা মামলার আসামি

নাঈমুল হাসান,টঙ্গী : টঙ্গীতে ছাত্রদলের সাবেক নেতা, হত্যাসহ একাধিক মামলার চার্জশিটভুক্ত আসামি ও বিবাহিতদের দিয়ে ছাত্রলীগের কমিটি ঘোষনার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত সোমবার সন্ধায় গাজীপুর মহানগরের টঙ্গী থানার অন্তর্গত ৫২, ৫৪, ৫৫ ও ৫৬ নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের নবগঠিত কমিটি ঘোষনা করা হয়। টঙ্গী থানা ছাত্রলীগের সভাপতি মেহেদি হোসেন কানন মোল্লা ও সাধারণ সম্পাদক মোশিউর রহমান সরকার বাবু স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে আগামী এক বছরের জন্য এ কমিটি অনুমোদন করা হয়েছে। এদিকে, কমিটি ঘোষনার পর বিক্ষোভে ফেটে পড়েন সংগঠনের ত্যাগী ও পদবঞ্চিত নেতারা।পদবঞ্চিত নেতারা ছাত্রলীগের এই পকেট কমিটি বিলুপ্তির দাবিতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিভিন্ন মন্তব্য করেছেন।

জানা যায়, দীর্ঘ ১৫ বছর পর টঙ্গী থানা ছাত্রলীগের অন্তর্গত ৫৪ নং ওয়ার্ডের নবগঠিত কমিটির সভাপতি হিসেবে ঘোষনা করা হয়েছে মেহেদী হাসান পলককে। পলক বিগত দিনে ছাত্রদল নেতা সিরাজুল ইসলাম সাথীর নেতৃত্বে ছাত্রদলের রাজনীতির সাথে জড়িত ছিলেন। তাছাড়া ছাত্রলীগের গঠনতন্ত্রকে বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে বিবাহিত পলক বাগিয়ে নিয়েছেন সংগঠনের গুরুত্বপূর্ণ সভাপতির পদ। কমিটি ঘোষনার পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে গেছে পলকের বিয়ের ছবি ও ছাত্রদলের মিছিলের সামনের সারিতে থাকা পলকের ছবি। বিয়ের ছবিতে টঙ্গী থানা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকসহ ছাত্রলীগের অন্যান্য নেতাদের উপস্থিতিও দেখা যায়। অভিযোগ রয়েছে, মোটা অঙ্কের টাকার বিনিময়ে পলককে সভাপতি হিসেবে ঘোষনা করেছেন টঙ্গী থানা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মোশিউর রহমান সরকার বাবু। ২৫ সদস্য বিশিষ্ট এ কমিটির সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক ও সাংগঠনিক সম্পাদকসহ অধিকাংশই সরকার বাবু সমর্থিত প্যানেলের। কিন্তু বিগত দিনে বিএনপি-জামাতের জ্বালাও পোড়াও আন্দোলনের বিরুদ্ধে মাঠে দেখা যায়নি এসব নেতাকে।

স্থানীয়রা অভিযোগ করেন, ‘যারা আন্দোলন সংগ্রামে মাঠে ছিল তাদেরকেই উপেক্ষিত রাখা হয়েছে। ছাত্রলীগের কি এতোই নেতাকর্মীর সংকট পড়েছে যে ছাত্রদল নেতাদের দিয়ে কমিটি ঘোষনা করা হলো। শুধু ছাত্রদল থেকে আগত ও বিবাহিত নয়, সরকার বাবু সমর্থিত প্যানেল থেকে হত্যা মামলার চার্জশিটভুক্ত আসামীকেও নেতৃত্বে আনা হয়েছে। ৫৫ নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে নির্বাচিত ইব্রাহিম সানি টঙ্গীর আলোচিত মঙ্গল চাঁন হত্যা মামলার অন্যতম আসামী। ২০১৫ সালে ২৩ জুন টঙ্গীর মিলগেট এলাকায় মঙ্গল চাঁনকে কুপিয়ে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। ওই মামলার চার্জশিটভুক্ত আসামী ইব্রাহীম। শুধু হত্যা মামলা নয় ইব্রাহিম সানির বিরুদ্ধে টঙ্গী থানায় মারামারি ও লুটের অভিযোগে একাধিক মামলা রয়েছে। এ কমিটির সিনিয়র সভাপতি পারভেজ ঢালীও বিবাহিত। এছাড়াও ৫২নং ওয়ার্ডের সিনিয়র সহ সভাপতি হাবিবুর রহমান ও সহ-সভাপতি আল আমিন বিবাহিত।

জানা যায়, স্থানীয় সাংসদ ওমরা পালনের উদ্দেশ্যে সৌদি আরব অবস্থান কালে এ কমিটি ঘোষনা করা হয়েছে।
এ বিষয়ে টঙ্গী থানা ছাত্রলীগের সভাপতি মেহেদি হোসেন কানন মোল্লার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি কোন মন্তব্য করতে রাজি হননি।

তবে টঙ্গী থানা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মোশিউর রহমান সরকার বাবু বলেন, টাকার বিনিময়ে কাউকে পদ দেওয়া হয়নি। ছাত্রদলের ব্যানারের সামনে পলকের যে ছবি দেখানো হচ্ছে সেটি গ্রাফিক্সে ইডিট করা।তবে কমিটির একাধিক নেতা বিবাহিত বলে স্বীকার করেন তিনি।

মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক তৌহিদুল ইসলাম দ্বীপ (মুঠোফোনে)বলেন,অভিযোগের সতত্যা পেলে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ