প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

‘বাংলাদেশে জঙ্গিবাদ ঠেকানোর ক্ষমতা অনেক বেশি’: আফসান চৌধুরী

ইসমাইল হোসেন বাবু : জঙ্গিবাদ কোনো দিন বাংলাদেশে বড় সমস্যা হবে না। আমার মনে হওয়ার কারণ, আমি এইটা নিয়ে গবেষণা করি। ছোট ছোট সমস্যা থাকবে বড় সমস্যা কোনো দিন হবে না। আইএস কোনো অবস্থাতে ভালো অবস্থানে নেই। শেষ সংবাদ পাওয়া পর্যন্ত বিদেশী আইএস যারা ছিল তারা খুব খারাপ অবস্থায় আছে। পালানোর চেষ্টা করছে কিন্তু পালাতে পারছে না। অনেকে আবার জানে, নিজের দেশে ফিরলে তাদের প্রচ- শাস্তি হবে। সেই জন্য তারা সেখানে যুদ্ধ করে মরে যেতে চায়। দৈনিক আমাদের অর্থনীতির সাথে আইএস সারাবিশ্বে ছড়িছে পড়া প্রসঙ্গে জানতে চাইলে গবেষক আফসান চৌধুরী এইসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, রাখার একটি অংশ এখনো আইএসের হাতে, সে জায়গাতে তারা আছে। বাংলাদেশ থেকে খুব অল্পসংখ্যকই আইএসে গেছে। কিন্তু তাদের সন্ধান এখনো পাওয়া যাচ্ছে না।আফগান ফেরত যেসব জঙ্গি বাংলাদেশে এসে সিরিজ বোমা হামলাসহ দেশের মধ্যে অরাজকতা সৃষ্টি করছে আইএস এই রকম কিছু করার সম্ভাবনা খুব কম।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, বাংলাদেশের জঙ্গিবাদ ঠেকানোর ক্ষমতা অনেক বেশি। অন্যান্য দেশের তুলনায় এই দেশের পুলিশ বাহিনীর শক্তি, ক্ষমতা অনেক বেশি। সেই ক্ষমতা সরকার এই সব ক্ষেত্রে ব্যবহার করবে। সরকার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির ক্ষেত্রে ততটা করতে চায় না বা ততটা করে না। কিন্তু তারা যথেষ্ট দক্ষ। পৃথিবীর কোনো রাষ্ট্র জঙ্গিবাদ সমর্থন করে না, যদি না জাতীয়তাবাদে সমর্থন থাকে। বাংলাদেশে তো কোনো সম্পর্ক নেই জঙ্গিবাদের সাথে জাতীয়তাবাদের। তাই বাংলাদেশে কোনো দিন জঙ্গিবাদ বড় হবে না। আফগানিস্তানে জাতীয়তাবাদের আন্দোলন থেকে জঙ্গিবাদের সৃষ্টি হয়েছে। আমাদের দেশে তো জাতীয়তাবাদী আন্দোলনের সমাধান হয়ে গেছে। আমাদের দেশে ট্রাফিক এক্সিডেন্টে মারা যায় প্রায় দশ হাজারের মতো মানুষ। তাহলে আমরা কেন চিন্তা করি? তাহলে দু-চারটা জঙ্গিমারা গেলে আমাদের কিছু আসে যায় না। ভারতে যে জঙ্গিবাদ হয়, সেটা তো কাশ্মিরকেন্দ্রিক।

পাকিস্তানে সেনাবাহিনী থেকে সরাসরি জঙ্গিবাদে অংশ নেয়, ওইটা তাদের রাজনৈতিক সংকট। আমার ধারণা, বাংলাদেশে কোনো রাজনৈতিক দল জঙ্গিবাদ সমর্থন করে না। আর বাংলাদেশে জঙ্গিবাদ সমর্থন করে রাজনীতি করা যাবে না। এমনকি জামায়াতে ইসলামীও জঙ্গিবাদ সমর্থন করে না। অতএব মুফতি হান্নানরা যা করেছিল, তারা ভাবছিল যে জনগণ জঙ্গিবাদের পক্ষে, এইটা তাদের ভুল ধারণা। আর এখন তো আইএসে যাওয়ার তো কোনো পথ নেই, রাস্তা তো একটা লাগবে। কোনো রাস্তা আমি দেখছি না। আইএস অধ্যায় শেষ।
সম্পাদনা : খন্দকার আলমগীর হোসাইন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত