প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

প্রতিবন্ধী তরুণীর শ্লীলতাহানি, সালিশে ৫০ হাজার টাকায় মীমাংসা!

ডেস্ক রিপোর্ট : যৌন হয়রানিফেনীর সোনাগাজী উপজেলার আমিরাবাদ ইউনিয়নের পূর্ব চরসাহাপুর গ্রামে শ্লীলতাহানির শিকার হয়েছেন ১৮ বছরের এক প্রতিবন্ধী তরুণী। রবিবার দুপুরে গ্রামের মুহুরী প্রকল্প সংলগ্ন এলাকায় ভ্যান চালক মো. সেলিমের যৌন সন্ত্রাসের শিকার হয় সে। এক পর্যায়ে স্থানীয়রা বখাটে ভ্যান চালককে হাতেনাতে আটক করে। পরে সালিশের নামে ৫০ হাজার টাকায় রফাদফা করে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

ঘটনার দিন সকালে উপজেলার আমিরাবাদ ইউনিয়নের পূর্ব চর সাহাপুর গ্রামের শারীরিক প্রতিবন্ধি ওই তরুণীকে ঘরে রেখে তার মা মাঠে ধান মাড়াইয়ের কাজে যান। দীর্ঘক্ষণ তারা বাড়িতে না ফেরার সুযোগে খড় কেনার কথা বলে চর সোনাপুর গ্রামের ভ্যান চালক মো. সেলিম (৩৮) ওই বাড়িতে যায়। এ সময় বাড়িতে কেউ না থাকায় সে ঘরে ঢুকে ওই তরুণীকে ধর্ষণের অপচেষ্টা চালায়। এ সময় তরুণীর চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এসে বখাটে সেলিমকে হাতেনাতে আটক করে।

এ ঘটনায় বাড়ির লোকজন স্থানীয় ইউপি সদস্য গেদু মিয়া ভূঁঞা ও সমাজের পঞ্চায়েত কমিটির সভাপতি আবদুর রাজ্জাক, সাধারণ সম্পাদক নুর আলমসহ কমিটির সদস্যদের ডেকে এনে সালিশ বসান। এ সময় বৈঠকে বখাটে সেলিম দোষ স্বীকার করলে সালিশদাররা তাকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করে মুছলেকা নিয়ে ছেড়ে দেয়।

স্থানীয় ইউপি সদস্য ও পঞ্চায়েত কমিটির উপদেষ্ঠা গেদু মিয়া ভূঁঞা বলেন, তরুণীর শ্লীলতাহানির ঘটনায় সালিশে যাওয়ার আগেই স্থানীয়রা বখাটে সেলিমকে ছেড়ে দেয়।

সোনাগাজী মডেল থানার ওসি মো. হুমায়ূন কবির বলেন, ঘটনায় জড়িত বখাটেকে গ্রেফতারে পুলিশ চেষ্টা চালাচ্ছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত