প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বাংলাদেশ চাইলে পশ্চিমা দেশগুলোর সাথে সুসম্পর্ক গড়তে পারতো (ভিডিও)

ওয়ালি উল্লাহ সিরাজ: রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন নিয়ে মিয়ানমার ও বাংলাদেশের মধ্যে যৌথ ওয়ার্কিং গ্রুপ গঠন করা হয়েছে। এবং প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া কিভাবে শুরু করা যায় সেই বিষয়েও তারা এক মত হয়েছেন। বাংলাদেশ যে অনেক দিন থেকে কাজ করে আসছে এটা তার একটি ভালো দিক। সেই সাথে দুইটা দেশই সবাইকে দেখাতে চেষ্টা করছে যে তারা কিছুটা কাজ করছে। কিন্তু এখানে একটি বিষয় লক্ষ্যণীয় সেটা হচ্ছে বাংলাদেশ এবং মিয়ানমার এই দুইটা দেশই অন্তর্জাতিক যে একটি বলয় আছে তার বাহিরে পরে গেছে। এই বিষয়ে আসলে বাংলাদেশে সাথে তো কেউ-ই নেই। বাংলাদেশ অবশ্য পশ্চিমা দেশগুলোর সাথে একটা ভালো সম্পর্ক গড়তে পারতো।

মঙ্গলবার দিবাগত রাতে চ্যানেল আইয়ের আজকের সংবাদপত্র অনুষ্ঠানে এমন মন্তব্য করেন সাংবাদিক, গবেষক ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক আফসান চৌধুরী।

তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশ ইচ্ছা করলেই পশ্চিমা দেশগুলোর সাথে সুসম্পর্ক গড়তে পারতো কিন্তু সেটা ইচ্ছা করেই করেনি। কেননা বাংলাদেশের চীনের উপর নির্ভরশীলতা অনেক বেশি। আর মিয়ানমারের তো চীনের সাথে সম্পর্ক আরো বেশি। সুতরাং মিয়ানমার ও বাংলাদেশের মাঝের যে সম্পর্ক সেটা কিন্তু চীন-ই করে দিয়েছে। এই ক্ষেত্রে চীন প্রধান ভূমিকা পালন করলো। আর এটা কিন্তু চীন নিজেদের স্বার্থ বাদ দিয়ে করেনি।

আফসান চৌধুরী আরো বলেন, বাংলাদেশে ও মিয়ানমারের মাঝে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসের বিষয়ে যে চুক্তি হয়েছে সেটা একটা ব্যার্থ চুক্তি। এই চুক্তি বিশ্বের কোন দেশের কাছেই মূল্যায়ন পায়নি। এই চুক্তির সব থেকে খারাপ হচ্ছে, যারা মিয়ানমারে ফেরত যেতে চায়না আমরা তাদেরকে কোন দিন-ই ফেরত পাঠাতে পারবো না। কক্সবাজার ও উখিয়াতে যারা কাজ করছে আপনি তাদেরকে জিজ্ঞাসে করে দেখতে পারেন, কোন রোহিঙ্গাই মিয়ানমারে ফিরত যেতে চায় না। যতদিন পর্যন্ত সকল রোহিঙ্গা মিয়ানমারে ফেরত না যাচ্ছে তত দিন আমরা বলতে পারি না যে, ভালো কিছু হয়েছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত