প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মাধ্যমিক শিক্ষায় বিশ্বব্যাংকের ৪২০০ কোটি টাকা ঋণ

ডেস্ক রিপোর্ট: বাংলাদেশের মাধ্যমিক শিক্ষা ব্যবস্থা ও শিক্ষার্থীদের ফলাফলের উন্নতির জন্য কর্মসূচিতে বিশ্বব্যাংক ৫১ কোটি ডলার ঋণ অনুমোদন করেছে। বাংলাদেশি মুদ্রায় যার পরিমাণ প্রায় চার হাজার ২০০ কোটি টাকা। বিশ্বব্যাংকের ঢাকা অফিস মঙ্গলবার এ তথ্য জানায়।

মাধ্যমিক শিক্ষায় ভালো ফলের জন্য সরকারের এ কর্মসূচিতে ষষ্ঠ থেকে দ্বাদশ শ্রেণির এক কোটি ৩০ লাখ শিক্ষার্থী উপকৃত হবে। এর মাধ্যমে শিক্ষকদের পাঠদান ও শিক্ষার্থীদের শেখার প্রক্রিয়ায় উন্নতি ঘটানো হবে। একই সঙ্গে মাধ্যমিক শিক্ষার স্তরে শিক্ষার্থীরা যাতে সহজে প্রবেশ করতে পারে এবং ঝরে না পড়ে তার জন্য এ কর্মসূচিতে বিশেষ উদ্যোগ রয়েছে। ছাত্রী ও দরিদ্র পরিবারের সন্তানদের দিকে বেশি মনোযোগ দেওয়া হবে।

বিশ্বব্যাংকের কান্ট্রি ডিরেক্টর চিমিয়াও ফান বলেন, ১৯৯৩ সাল থেকে বিশ্বব্যাংক মাধ্যমিক শিক্ষা খাতের উন্নয়নে সহায়তা করছে। এখন বাংলাদেশ হচ্ছে মাত্র কয়েকটি নিম্ন ও নিম্নমধ্যম আয়ের দেশের অন্যতম, যারা মাধ্যমিক শিক্ষায় নারী-পুরুষ সমতা নিশ্চিত করতে পেরেছে। বাংলাদেশের পরবর্তী চ্যালেঞ্জ হলো, গুণগত মানের শিক্ষা এবং একই সঙ্গে দরিদ্র শিক্ষার্থীদের মাধ্যমিক শিক্ষা নিশ্চিত করা।

বিশ্বব্যাংকের নমনীয় ঋণপ্রদানকারী অঙ্গপ্রতিষ্ঠান আইডিএর এ ঋণ ৩৮ বছরে পরিশোধ করতে হবে। ছয় বছর পর্যন্ত কোনো কিস্তি দেওয়া লাগবে না। বিশ্বব্যাংকের এ ঋণে কোনো সুদ নেই। ঋণের সার্ভিস চার্জ মাত্র শূন্য দশমিক ৭৫ শতাংশ।

বিশ্বব্যাংক এ পর্যন্ত বাংলাদেশকে ২ হাজার ৬০০ কোটি ডলার সুদমুক্ত ঋণের প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত