প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কপাল খুলছে ছাত্রলীগের সাবেক নেতাদের
দলীয় মনোনয়নে বিবেচনায় আসছে ৯০ পরবর্তী নেতারা

আসাদুজ্জামান স¤্রাট : এবার কপাল খুলে যেতে পারে ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও সম্পাদকদের। আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সাবেক নেতাদের অনেকেই দলীয় মনোনয়ন পেতে যাচ্ছেন। বিগত জাতীয় সংসদ নির্বাচনগুলোতে এক প্রকার উপেক্ষিতই ছিলেন এসব নেতারা।

আওয়ামী লীগের নির্বাচনী রাজনীতিতে ৯০ দশক পরবর্তী ছাত্রনেতারা সবসময় উপেক্ষিতই থেকেছেন। দলীয় মনোনয়নের ক্ষেত্রে এদেরকে বিবেচনায় না আনায় একই সঙ্গে অন্য দলের রাজনীতি করা ছাত্রনেতারা অনেক আগেই এমপি ও মন্ত্রী হয়েছেন। এবার তার ব্যতিক্রম হতে যাচ্ছে। ৯০ পরবর্তী ছাত্রনেতাদের মধ্যে দু’একজন ছাড়া সবাই দলীয় মনোনয়ন পেতে যাচ্ছেন। ছাত্রলীগের সাবেক নেতা ওবায়দুল কাদের দলের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হওয়ার পর থেকেই ছাত্রনেতাদের মনে আশার সঞ্চার হয়েছে।

আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ৯০ এর গণআন্দোলনের সময়ে ছাত্রলীগের সভাপতি শাহে আলম ও সাধারণ সম্পাদক অসীম কুমার উকিল এখন পর্যন্ত দলীয় মনোনয়ন পাননি। আসন্ন নির্বাচনে শাহে আলম বরিশাল-২ আসন থেকে মনোনয়ন পেতে পারেন। ওই আসনের বর্তমান সংসদ সদস্য তালুকদার মো. ইউনূস অন্য এলাকার বাসিন্দা হওয়ায় এবার শাহে আলমকেই বিবেচনায় আনা হচ্ছে। বরিশাল-৫ (সদর) আসনে দলীয় মনোনয়ন দেয়া হবে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তালুকদার মো. ইউনূসকে।

অসীম কুমার উকিল দীর্ঘদিন ধরেই নেত্রকোনা-৩ আসনে কাজ করে যাচ্ছেন। এ আসনে তিনি দলীয় মনোনয়ন পেতে পারেন। আলম-অসীম কমিটির পরে ছাত্রলীগের মঈন-ইকবাল কমিটির সভাপতি মাঈন উদ্দিন হাসান চৌধুরী চট্টগ্রাম-১৪ আসন থেকে দলীয় মনোনয়ন চান। ওই কমিটির সাধারণ সম্পাদক ইকবালুর রহমান ইতিমধ্যে দু’দুবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি বর্তমানে প্রতিমন্ত্রীর পদমর্যাদায় জাতীয় সংসদের হুইপ।
শরীয়তপুর-২ আসনে দলীয় মনোনয়ন অনেকটাই নিশ্চিত ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি এনামুল হক শামীমের। তিনি বর্তমানে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক। ওই এলাকার বর্তমান সংসদ সদস্য ও সাবেক ডেপুটি স্পিকার কর্নেল (অব.) শওকত আলী অসুস্থ। জোটের জন্য না ছাড়লে পিরোজপুর-২ আসনে দলীয় মনোনয়ন পাবেন একই কমিটির সাধারণ সম্পাদক ইসহাক আলী খান পান্না। জোটের কারনে ইতিপূর্বে তিনি দু’বার মনোনয়ন বঞ্চিত হয়েছেন। পরের কমিটির সভাপতি বাহাদুর বেপারী শরীয়তপুর-৩ আসন থেকে দলীয় মনোনয়ন পেতে পারেন। তাঁর কমিটির সাধারণ সম্পাদক অজয় কর খোকন রাজনীতিতে খুব একটা সক্রিয় না হওয়ায় তার মনোনয়নের বিষয়টি নিশ্চিত নয়।

ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি লিয়াকত শিকদারের ফরিদপুর-৪ আসন থেকে দলীয় মনোনয়ন পেতে বড়ো বাধা আরেক ছাত্রনেতা আব্দুর রহমান। তিনি দু’দুবারের সংসদ সদস্য ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক। তারই কমিটির সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম বাবু ইতিমধ্যে দু’বার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মাহমুদ হাসান রিপন দলীয় মনোনয়ন চান গাইবান্ধা-৫ আসন থেকে। তার কমিটির সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুল হায়দার চৌধুরী রোটন দলীয় মনোনয়ন চান চট্টগ্রাম-৬ আসন থেকে। ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি বদিউজ্জামান সোহাগের বাগেরহাট-৪ আসন থেকে দলীয় মনোনয়ন পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। ওই আসনের সংসদ সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী ডা. মোজাম্মেল হক বয়সের ভারে ন্যুজ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত