প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

দামুড়হুদায় বাকপ্রতিবন্ধী কিশোরী ধর্ষণ, ৭ মাসের গর্ভবতী হয়ে থানায় মামলা

শামসুজ্জোহা পলাশ, চুয়াডাঙ্গা : চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার জয়রামপুর হাজিপাড়ার বাকপ্রতিবন্ধী কিশোরীকে ফুসলিয়ে ধর্ষণ। অবশেষে দিনমজুরের ধর্ষিত বাকপ্রতিবন্ধী শিশুকন্যা ৭ মাসের গর্ভবতী। বাকপ্রতিবন্ধী শিশুকন্যার দিনমজুর অসহায় পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছেন মানবাধিকার সংগঠন মানবতার নেতৃবৃন্দ।

মানবতা সংগঠনের উদ্যোগেই অভিযুক্ত প্রতিবেশী ডিস ব্যবসায়ী আলমকে অভিযুক্ত করে দামুড়হুদা মডেল থানায় ধর্ষণ মামলা দায়ের করা হয়েছে।

মানবতা ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক অ্যাড. মানি খন্দকার, সমন্বয়কারী অ্যাড. কাইজার হোসেন জোয়ার্দ্দার, অপারেশন অফিসার অ্যাড. জীল্লুর রহমান এবং সহমোটিভেশন কর্মকর্তা মাহফুজা আকতার যুথির উপস্থিতিতে ওই বাকপ্রতিবন্ধীর মা বাদী হয়ে রোববার (১৯ নভেম্বর) রাত ৯টায় মামলা দায়ের করেন।

মামলা দায়েরকালে ভিকটিম বাকপ্রতিবন্ধী ওই কিশোরী দামুড়হুদা মডেল থানার ওসি আকরাম হোসেনকে ইশারা-ইঙ্গিতে প্রতিবেশী ডিস ব্যবসায়ী আলমের নাম প্রকাশ করে।

দামুড়হুদা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আকরাম হোসেন জানান, (আজ ২০ নভেম্বর) সোমবার সকালে ভিকটিমের ডাক্তারি পরীক্ষাসহ অন্যান্য প্রক্রিয়াস¤পন্ন করা হবে। ধর্ষণের অভিযোগে অভিযুক্ত ডিসব্যবসায়ী আলমকে দ্রুত গ্রেফতার করতে পুলিশি অভিযান অব্যাহত রাখা হয়েছে।

উল্লেখ্য, জয়রামপুর হাজিপাড়ার এক অসহায় হতদরিদ্র ভ্যানচালকের বাকপ্রতিবন্ধী কিশোরী মেয়েকে ৭ মাস আগে ফুসলিয়ে ধর্ষণ করা হয়। ফলে সে গর্ভবতী হয়ে পড়ে। ডাক্তারি পরীক্ষা শেষে জানাযায় বর্তমানে সে ৭ মাসের অন্তঃসত্ত্বা।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ