প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

দুই পাকিস্তানিই থামালো ঢাকার জয়রথ

স্পোর্টস ডেস্ক: নিজেদের প্রথম ম্যাচে দুই দলই হেরেছিল আসরে। এরপর ঠিক এক রথে এগিয়েছে ঢাকা ডায়নামাইটস ও কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। আর কোন ম্যাচেই হারের মুখ দেখেনি এ দুদল। তবে শীর্ষে থাকা দুটি দল যখন মুখোমুখি তখন একটা দলকে তো হারতেই হবে। সেখানে সাকিব আল হাসানের ঢাকাকে হারের স্বাদ উপহার দিল তামিম ইকবালের কুমিল্লা। ম্যাচটা ৪ উইকেটে জিতে ঢাকার চেয়ে এক ম্যাচ কম খেলেও বিপিএলের পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে উঠে গেল ২০১৫ সালের চ্যাম্পিয়ন। কুমিল্লার এই জয়ে নেতৃত্ব দিয়েছেন দুই পাকিস্তানি। বোলিংয়ে ৫ উইকেট হাসান আলীর। তারপর ব্যাট হাতে শোয়েব মালিকের অনবদ্য ৫৪ রানই ম্যাচ উইনিং ইনিংস।

মিরপুর শের-এ- বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে সোমবার দিনের প্রথম ম্যাচে টস জিতে আগে ব্যাটিং বেছে নেন ঢাকার অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। শুরুতে নারিনের তোপে পড়ে কুমিল্লার বোলাররা। কিন্তু পাকিস্তানি বোলার হাসান আলির বোলিং তোপে মাত্র ১২৮ রানে গুটিয়ে যায় ঢাকা।

১২৯ রানের জবাব দিতে একেবারে হেসে খেলে ম্যাচটা জিততে পারার কথা থাকলেও তা হয়নি। বরং ঢাকার বোলাররা বারবার চাপ তৈরির চেষ্টা করলো কুমিল্লার ব্যাটসম্যানদের উপর। ম্যাচের রংও বদলালো বার কয়েক। কিন্তু হাসান আলির মতো অতোটা দুর্দান্ত কিছু করতে পারেনি মোহাম্মদ আমির বা সুনিল নারিনরা। বরং ব্যাট হাতে দায়িত্বশীল এক ফিফটির ইনিংস খেলে দিলেন মালিক। তাই ২ বল বাকি থাকতে ৪ উইকেটের স্বস্তির জয় কুমিল্লার। এবং ম্যাচটির ফল এলো শ্বাসরুদ্ধকর হয়ে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর :
ঢাকা ডায়নামাইটস : ১২৮ (১৮.৩ ওভার) (নারিন ৭৬, লুইস ৭, মারুফ ০, সাঙ্গাকারা ২৮, পোলার্ড ১, সাকিব ৩, মোসাদ্দেক ১, জহুরুল ২, সাদ্দাম ১, আমির ৬*, রনি ০; মেহেদী ০/৩৩, হাসান ৫/২০, রশিদ ১/১৭, মালিক ০/১৬, সাইফ ২/২৯, আল-আমিন ০/১২)।
কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স : ১২৯ (১৯.৪ ওভার) (তামিম ১৮, লিটন ০, কায়েস ২০, মালিক ৫৪*, ব্রাভো ১২, বাটলার ১১, সাইফ ৪, মেহেদী ৩*; আমির ২/৩৫, রনি ১/২৫, নারিন ২/১৭, সাকিব ০/২৩, সাদ্দাম ১/৩৬)।
ফল : কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স ৪ উইকেটে জয়ী।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত