প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে কুয়েতে সম্মেলন!

রাশিদ রিয়াজ : ইসরায়েরের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে কুয়েতে এক সম্মেলন শুরু হয়েছে এবং এধরনের উদ্যোগ নিয়েছে বয়কট ডাইভেস্টমেন্ট স্যাংশন মুভমেন্ট (বিডিএস) নামে একটি সংগঠন। সংগঠনটির গালফ শাখা এ উদ্যোগ নিয়েছে। ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে আইনগত বাধা ছাড়াও এধরনের সম্পর্ক মধ্যপ্রাচ্যের জন্যে নতুন করে কোনো ঝুঁকি সৃষ্টি হবে কি না সে বিষয়েও আলোচনা চলছে। আলোচনা চলছে ইসরায়েলকে বয়কট করার কৌশল নিয়েও, ইরায়েলের প্রভাব নিয়েও।

এর আগে ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, উপসাগরীয় দেশগুলো ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে অভূতপূর্ব সাড়া দিতে শুরু করেছে। ইসরায়েরের সঙ্গে সরাসরি টেলিফোন সংযোগ স্থাপন, পশ্চিম তীরে দখলকৃত ফিলিস্তিনি ভূমির আংশিক ফেরত দেওয়ার মত ইস্যু কিংবা গাজায় বাণিজ্য অবরোধ শিথিল করারমত বিষয়গুলো নিয়ে কথাবার্তা চলছে। এধরনের উদ্যোগের পুরোধা দুই দেশ হচ্ছে সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাত। তারা এক্ষেত্রে মার্কিন প্রশাসনের দিক নির্দেশনাও অনুসরণ করছে। বিশেষ করে ইসরায়েলের সঙ্গে সরাসরি বিমান যোগাযোগ, ইসরায়েলের সঙ্গে বাণিজ্যিক সম্পর্ক, ইসরায়েলি এ্যাথলেটদের ভিসা প্রদান, উপসাগরীয় দেশগুলোতে ইসরায়েলি ব্যবসায়ীদের ভ্রমণের সুযোগ সহ বিভিন্ন উদ্যোগ নিয়ে চলছে ইসরায়েলের সঙ্গে আলাপ আলোচনা।

কুয়েতের এ সম্মেলনে যুক্তরাষ্ট্রে দক্ষিণ আফ্রিকার ছাত্রদের আন্দোলন নিয়েও পর্যালোচনা করা হবে। ফিলিস্তিন ইস্যুতে ইহুদিদের সন্ত্রাস আলোচনায় স্থান পাচ্ছে। সম্মেলনের খরচ বহন করছে কুয়েত সংসদ। দেশটির জনপ্রিয় বিভিন্ন সংস্থা এতে যোগ দিচ্ছে। কুয়েত সংসদের স্পিকার মারকুজ আল-ঘানিম সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন।

সম্মেলনের সমন্বয়ক কমিটির সদস্য মারিয়াম আল-হাজরি আল-আরাবি আল-জাদিদকে বলেন, এ ধরনের সম্মেলনের প্রয়োজন হচ্ছে কেননা কিছু আরব দেশ ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক সম্পূর্ণ স্বাভাবিক করার দিকে ঝুঁকছে এবং ফিলিস্তিনিদের সংগ্রামে এতদিন যে ত্যাগ ও রক্ত দিতে হয়েছে তা উপেক্ষা করছে। মধ্যপ্রাচ্যে ও উপসাগরীয় দেশগুলোর মধ্যে ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার একটি প্রবণতা দেখা যাচ্ছে। আমরা এর বিরোধিতা করে আসছি এসব দেশগুলোকে ইহুদিবাদি বিভিন্ন ষড়যন্ত্র থেকে রক্ষা করতে হবে। আমাদের ভবিষ্যত প্রজন্ম ও বংশধররা যাতে এর মোকাবেলা ও প্রতিরোধ গড়ে তুলতে পারে।

কুয়েত সংসদের স্পিকার মারকুজ আল-ঘানিম বিডিএস আন্দোলনকে আরো জোরদার করার আহবান জানান। বিডিএস ইসরায়েলি পণ্য বর্জন ও দেশটির সঙ্গে অর্থনৈতিক সম্পর্ক না করার পক্ষে দীর্ঘদিন ধরে আন্দোলন ও প্রচারণা চালিয়ে আসছে।

আয়োজকদের মধ্যে অন্যান্যরা বলেন, ইসরায়েরের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার ক্ষেত্রে বিপজ্জনক ইস্যুগুলো সম্মেলনে তুলে ধরা হবে। মধ্যপ্রাচ্য ও উপসাগরীয় দেশগুলোর মানুষ ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার পক্ষে ও বিপক্ষে যে অভিমত দেন তাও লিপিবদ্ধ করা হবে। মিডিল ইস্ট মনিটর

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত