প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

দার্জিলিং থেকে ছেড়ে আসা বাসে দুর্ধর্ষ ডাকাতি 

আরএইচ রফিক, বগুড়া : বগুড়ায় ভারতের দারর্জিলিং ও শিলিগুড়ি থেকে আগত শ্যামলী পরিবহনের অত্যাধুনিক যাত্রীবাহী কোচে দুধর্ষ ডাকাতি সংঘটিত হয়েছে

লালমনিরহাটের বুড়িমারী স্থলবন্দর থেকে ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে আসা শ্যামলী পরিবহনের যাত্রীবাহী বাসটি বগুড়ার শাহজাহানপুর এলাকায় সঙ্গবদ্ধ ডাকাতদের হাতে আক্রান্ত হয় বলে প্রাথমিক ভাবে নিশ্চিত হওয়া গেছে।

গত শনিবার দিবাগত গভীর রাতে ডাকাতির এ ঘটনা ঘটে। রোববার দুপুরে শেরপুর থানা পুলিশ ডাকাতির বিষয়টি নিশ্চিত করে।

জানা গেছে, ভারতের শিলিগুড়ি থেকে আগত শ্যামলী পরিবহনের অত্যাধুনিক যাত্রীবাহী একটি কোচ ঢাকায় যাবার পথে শনিবার গভীর রাতে বগুড়ার শাজাহানপুর উপজেলার বি-বল্ক এলাকা থেকে যাত্রীবেশী সাতজনের ডাকাতদল ডাকাতি শুরু করে।

এসময় তারা অস্ত্রে মুখে যাত্রীদের সর্বস্ব লুন্ঠন শেষে শেরপুর উপজেলার ঢাকা-বগুড়া মহাসড়কের রাজাপুর এলাকায় নেমে যায়।

ডাকাতির ঘটনায় ঠিক কি পরিমান টাকা এবং মালামাল লুন্ঠিত হয়েছে সে বিষয়ে বিস্তারিত জানা যায়নি।

এদিকে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক পুলিশের একটি দায়িত্বশীল সূত্র জানায়, শ্যামলী পরিবহনের ওই বাসটি ভারতের শিলিগুড়ি থেকে বুড়িমারী স্থলবন্দর হয়ে ঢাকার উদ্দেশে যাচ্ছিলো।

কোচের চালক সেলিম মিয়া ও সুপার ভাইজারের নাম রেজা মিয়ার বরাত দিয়ে শেরপুর থানা পুলিশের একটি দায়িত্বশীল বিষয়টি নিশ্চিত করে জানায়, শনিবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে বুড়িমারী থেকে ঢাকার উদ্দেশে শ্যামলী পরিবহনের একটি বাস (ঢাকা মেট্রো-ব-১৫-১২৮২) বিদেশি নাগরিক সহ ৩০ জন যাত্রী নিয়ে রওনা হয়।

রাত ২টার দিকে কোচটি বগুড়ার শাজাহানপুর উপজেলার বি-বল্ক এলাকায় পৌঁছলে যাত্রীবেশী ৭/৮ জন ডাকাত দল অস্ত্রের মুখে চালককে জিম্মি করে বাসের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেয়।

এরপর তারা যাত্রীদের ভয়ভীতি দেখিয়ে লুটপাট শুরু করে। তারা সকল যাত্রীর কাছ থেকে নগদ অর্থ ও মোবাইল ফোনসহ মূল্যবান জিনিস পত্র লুটে নিয়ে শেরপুর উপজেলার ঢাকা-বগুড়া মহাড়কের রাজাপুর নামক এলাকায় নেমে যায়।

রোববার শেষ খবর পর্যন্ত ডাকাতির ঘটনায় কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি। তবে শেরপুর পুলিম দাবী করেছে ঘটনার পর পরই পুলিশ এব্যপারে তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত