প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

২২ বছর পর সামরিক বাহিনী গঠন করছে হাইতি

প্রত্যাশা প্রমিতি সিদ্দিক: ২২ বছর পর হাইতিতে সামরিক বাহিনী গঠন করতে যাচ্ছে দেশটির সরকার। শনিবার প্রেসিডেন্ট জোভানেল মইস পুনরায় সামরিক বাহিনী গঠনের ঘোষণা দেন।

বৃহস্পতিবার প্রেসিডেন্ট মইস সাবেক আর্মি কর্ণেল জোডেল লেসাগেকে ‘কমান্ডার ইন চিফ’ হিসেবে ঘোষণা করলেও সংসদে এখনো তা পাশ হয়নি। গত শনিবার মইসকে অভ্যর্থনা জানায় সামরিক বাহিনী।

হাইতির প্রতিরক্ষা মন্ত্রী হার্ভে ডেনিস জানিয়েছেন, ৫০০ প্রকৌশলী, ডাক্তার এবং বৈমানিক সৈন্যদের সমন্বয়ে সামরিক বাহিনীটি গঠন করা হবে। এছাড়াও আরো ৫০০০ সৈন্য বাড়ানোর কথাও নিশ্চিত করেন তিনি।

তবে সামরিক বাহিনীর পুনরুত্থানকে কেন্দ্র করে বেশ কিছু বিভেদের সৃষ্টি হয়েছে। বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন গতকয়েক বছরে বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগের ফলে ক্ষতিগ্রস্থ দেশটিতে সামরিক বাহিনীর পুনরুত্থান রাজনীতি, শিক্ষা এবং স্বাস্থ্য খাতকে ব্যাহত করতে পারে ।

এ প্রসঙ্গে বিরোধী দলের নেতারা বলেন, সামরিক বাহিনী পুন:প্রতিষ্ঠাই মইসের মূল ঊদ্দেশ্য নয়। বরং সৈন্যদের দ্বারা রাজনৈতিক নির্যাতন করাই এর মূল উদ্দেশ্য।

উল্লেখ্য, বারংবার সামরিক অভ্যুত্থানের ফলে ১৯৯৫ সালে তৎকালীন প্রেসিডেন্ট জিন বার্নার্ড আরিসটিড সামরিক বাহিনী কে বিলুপ্ত ঘোষণা করেন। বিগত ২২ বছর যাবৎ মধ্য আমেরিকার এ দ্বীপ রাষ্ট্রটিতে কোনো সামরিক বাহিনী ছিলনা। রয়টার্স

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ