প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মাহমুদউল্লাহ-রুশোর ব্যাটে দারুণ জয় খুলনার

ডেস্ক রিপোর্ট : বিপিএলের শুরুর দিকে আক্ষেপ ছিল একটা। ম্যাচগুলো ঠিক জমছিল না। টি-টুয়েন্টি ক্রিকেটে দুই দলের হাড্ডা-হাড্ডি যে লড়াই, সেই জাতীয় কিছু হচ্ছিল না খুব বেশি। বেশিরভাগই যেন ছিল একতরফা ম্যাচ। তবে ধীরে ধীরে তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতার ম্যাচ বড়ছে। শুক্রবার আগে ব্যাট করে ১৬০ রান করেও যেমন জিততে পারলোনা চিটাগং ভাইকিংস। টি-টুয়েন্টিতে স্কোরটা তেমন কিছু না হলেও ম্যাচে রোমাঞ্চ ছিল দারুণ। জবাব দিতে নেমে এক পর্যায়ে কঠিন মনে হলেও ম্যাচটা ৫ উইকেটে জিতে নিল খুলনা টাইটান্স। সেটিও আবার ১.৪ ওভার হাতে রেখে। এনিয়ে দুই দলের দুই বারের দেখাতেই জয় খুলনার।

মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে টস হেরে চিটাগংকে আগে ব্যাট করতে পাঠায় খুলনা। নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উইকেটে ১৬০ রান করে চিটাগং। জবাব দিতে নেমে রাইলি রুশোর ব্যাটে ম্যাচেই ছিল খুলনা। কিন্তু রুশোর বিদায়ের পর কিছুটা চাপ তৈরি হয়। সেই চাপ দারুণ ভাবে সমলে দলকে জয় এনে দেন অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। ৪৮ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলেছেন রিয়াদ। রুশোর ব্যাট থেকে এসেছে ৪৯ রান।

চিটাগংয়ের দেওয়া লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে খুলনার হয়ে ঝড় তুলেন রাইলি রুশো। দলীয় ১৮ রানেই অবশ্য ফিরে যান ওপেনিংয়ে তার সঙ্গি ক্লিঙ্গার (১)। তবে আরেক রুশো তান্ডব চালাতে থাকলেন চিটাগংয়ের বোলারদের উপর। ২৬ বলে ৩ ছক্কা ও ৫ চারে ৪৯ রান করেন। তবে রুশো ফেরার পর শঙ্কায় পড়ে যায় খুলনার দর্শকরা। ৬০ রানে যখন ৩ উইকেট পড়লো জয় তখনো ১০০ রান দূরে। এর মধ্যে আর খুব বেশি সময় টিকতে পারলেন না নাজমুল হোসেন শান্ত। তবে আরিফুল হককে নিয়ে মাহমুদউল্লাহর ৭০ রানের জুটি খুলনাকে জয়ের বন্দরে নিয়ে যায়।

মাহমুদউল্লাহ ৩৫ বলে অপরাজিত ৪৮ রান করেন ৪ টি চার ও ১ ছক্কায়। আরিফুল ২৪ বলে ৩ ছক্কায় করেন ৩৪ রান। শেষে কার্লোস ব্র্যাথওয়েট এসে ২ বলেই শেষ করে দেন খেলা। ১টি করে চার ও ছক্কায় ১০ রানে অপরাজিত থেকে মাঠে ছাড়েন তিনি। চিটাগংয়ের হয়ে ১টি করে নিয়েছেন সিকান্দার রাজা, সানজামুল ইসলাম, তাসকিন আহমেদ, আল-আমিন ও তানবীর হায়দার।

এর আগে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উইকেটে ১৬০ রান করে চিটাগং। এনামুল হক বিজয়ের ব্যাট থেকে এসেছে ৬২ রান। সৌম্য সরকার করেছেন ৩২ রান। বড় অবদান নাজিবুল্লাহ জাদরান ও স্টিয়ান ভ্যান জিলেরও। নাজিবুল্লাহ ২৪ ও জিল খেলেছেন অপরাজিত ২৩ রানের ঝড়ো ইনিংস। খুলনার আবু জায়েদ ৩ উইকেট নিয়েছেন। ১ উইকেট নিয়েছেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। পরিবর্তন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ