প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

হিসাব বহির্ভূত ১৪৩০ কোটি রুপির সন্ধান মিলল ভারতের জনপ্রিয় টিভি চ্যানেলে

অরিজিৎ দাস চৌধুরি, কলকাতা থেকে: ১৪৩০ কোটি রুপি। হ্যাঁ, এই বিপুল পরিমাণ অর্থই শশীকলার পরিবার এবং জনপ্রিয় তামিল টিভি চ্যানেল জয়া টিভি থেকে উদ্ধার করলেন আয়কর দপ্তরের আধিকারিকরা।
দেশ জুড়ে চলছে অপারেশন ‘ক্লিন মানি’। আর তারই অধীনে গত বৃহস্পতিবার থেকে কর ফাঁকি দেওয়ার অভিযোগে চেন্নাইয়ের জনপ্রিয় জয়া টিভির সদর দপ্তরে হানা দিয়েছিলেন আয়কর অফিসাররা। সদর দপ্তরের পাশাপাশি চ্যানেলের অন্যান্য আঞ্চলিক অফিস এবং জেলবন্দি শশীকলার ভাই ভি কে দিনাকরণের আয়ও খতিয়ে দেখা হয়। যেখানে তল্লাশি চালিয়ে এমনই বড় অঙ্কের কারচুপির সন্ধান পেয়েছেন আধিকারিকরা। তাঁরা জানাচ্ছেন, হিসাব বহির্ভূত অর্থের ৭ কোটি রুপি পাওয়া গিয়েছে নগদে এবং ৫ কোটি রুপির সোনা ও হিরের গয়না উদ্ধার করা হয়েছে। তবে গয়নার মূল্য আরও বেশি বলেই মনে করা হচ্ছে।
জনপ্রিয় এই তামিল টিভি চ্যানেল শীর্ষ দক্ষিণী নেতানেত্রীদের নামের সঙ্গে যুক্ত। AIADMK নেত্রী শশীকলা ও দীনাকরণ তাঁদের নানা রাজনৈতিক উদ্দেশ্য পূরণের জন্য এই চ্যানেলকে কাজে লাগাতেন বলে অভিযোগ রয়েছে। সংবাদ সংস্থা পিটিআই সূত্রে খবর, জয়া টিভির ব্র্যান্ড নেমের আড়ালে বিভিন্ন ভুয়া সংস্থা খুলে বিদেশে টাকা লগ্নি করা হত বলে অভিযোগ পেয়েছেন আয়কর বিভাগের অফিসাররা। ওই চ্যানেলের মাধ্যমে বিদেশ থেকে নানা উপায়ে এ দেশে ঢুকত দেদার কালো টাকা। যার কোনও হিসাব নেই চ্যানেল কর্তৃপক্ষের কাছে।যার জেরেই গত পাঁচদিন ধরে তল্লাশি চালাচ্ছিল আয়কর দপ্তর।
তল্লাশি শেষে এক সিনিয়র আধিকারিক জানান, হিসাব বহির্ভূত আয়ের পরিমাণ ১৪৩০ কোটি রুপিরও বেশি। এর পাশাপাশি শশীকলার পরিবারের সদস্যরা যে গোপনে আরও কিছু কোম্পানি চালাচ্ছেন, সে তথ্য প্রমাণও হাতে এসেছে তাঁদের। তল্লাশিতে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ নথিও পাওয়া গিয়েছে বলে জানা গিয়েছে।গত পাঁচ দিনে কর ফাঁকি দেওয়ার অভিযোগে তামিলনাড়ু, অন্ধ্রপ্রদেশ, পুডুচেরী এবং দিল্লির ১৮৭ টি স্থানে হানা দিয়েছেন আধিকারিকরা। যদিও তাঁদের ফোকাসে ছিল জয়া টিভি।
আনিস/

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ