প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

শেরপুর জেলা আ. লীগের পাঁচ নেতাকে শোকজের সিদ্ধান্ত

তপু সরকার হারুন, শেরপুর :শেরপুরে জেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী পরিষদের পর পর পাঁচ সভায় অনুপস্থিত থাকায় জেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য শেরপুর-৩ আসনের সংসদ সদস্য এ কে এম ফজলুল হক চানসহ দলের পাঁচ নেতাকে কারণ দর্শাও (শোকজ) নোটিশ দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। ‘কেন সাংগঠনিক নিয়ম অনুসারে ব্যবস্থা নেওয়া হবে না’ জানতে চেয়ে সাত দিনের মধ্যে লিখিত আকারে ওই নোটিশ পৌঁছানো হবে। একই কারণে জেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির ১ নম্বর সদস্য কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরীর বিষয়ে সাংগঠনিক পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য কেন্দ্রীয় কমিটি বরাবর সভার কার্যবিবরণী পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। গত শুক্রবার রাতে শহরের চকবাজার দলীয় কার্যালয়ে জেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী পরিষদের সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হুইপ আতিউর রহমান আতিক।
কারণ দর্শাও নোটিশ পাচ্ছেন এমন অন্য নেতারা হলেন জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি শামছুন্নাহার কামাল, নালিতাবাড়ী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জিয়াউল হক মাস্টার, সাধারণ সম্পাদক মো. ফজলুল হক ও নকলা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম জিন্নাহ।
২০১৪ সালের ৪ ডিসেম্বর ঝিনাইগাতী উপজেলা, ২০১৫ সালের ১৩ ফেব্রুয়ারি শ্রীবরদী উপজেলা, ১৪ ফেব্রুয়ারি শেরপুর শহর ও ৮ মার্চ শেরপুর সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনের মাধ্যমে সভাপতি-সম্পাদক নির্বাচিত হলেও এত দিন পূর্ণাঙ্গ কমিটি হয়নি। সভায় এ চার কমিটির পূর্ণাঙ্গ অনুমোদন দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়। জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক চন্দন কুমার পাল সভায় সিদ্ধান্তের বিষয়গুলো নিশ্চিত করেছেন। সম্পাদনা: মোহাম্মদ আবদুল্লাহ মজুমদার