প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

শাহজালালে জেট ফুয়েলের চাহিদা বাড়ছে

মবিনুর রহমান: আর্ন্তজাতিক বাজারের সাথে বাংলাদেশের জেট ফুয়েলের দাম সামঞ্জস্য থাকায় শাহজালাল বিমান বন্দরে জ্বালানি তেলের চাহিদা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। আভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক এয়ারলাইন্সগুলো যাতায়াত বৃদ্ধি পাওয়ায় এ চাহিদা বাড়ছে।

বাংলাদেশ পেট্রোলিয়ম করপোরেশন (বিপিসি) গণসংযোগ কর্মকর্তা রিয়াজ রহমান জানান, একটা সময় ছিল আমাদের দেশে জেট ফুয়েলের দাম অনেক বেশি ছিল। একারণে অধিকাংশ এয়ারলাইন্স বাংলাদেশ থেকে তেল সংগ্রহ করত না। লোকাল ফ্লাইটগুলো কোলকাতা বা অন্য দেশ থেকে তেল সংগ্রহ করত। এখন আমাদের দেশে তেলের দাম কমেছে। এয়ারলাইন্সগুলো আমাদের দেশ থেকে তাদের প্রয়োজনীয় জ্বালানি তেল সংগ্রহ করছে। এছাড়াও গত দুই থেকে তিন বছরে ইউএস বাংলাসহ অনেক এয়ারলাইন্সের সংখ্যা বেড়েছে। তাই তেলের চাহিদাও বেড়েছে। আর্ন্তজাতিক বাজারের সাথে সামঞ্জস্য রেখে আমরা তেলের দাম নির্ধারণ করছি।

পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, ২০১৪-১৫ অর্থ বছরে ২লাখ ৭৯ হাজার ১৪২ মে.টন, ২০১৫-১৬ অর্থ বছরে ২লাখ ৮৫ হাজার মে.টন, ২০১৬-১৭ অর্থ বছরে ৩ লাখ ৯ হাজার মে.টন, ২০১৭-১৮ অর্থ বছরে ৩লাখ ২৮হাজার ৮২২ মে.টন জ্বালানি তেল বৃদ্ধি পেয়েছে ।

বাংলাদেশ পেট্রোলিয়ম করপোরেশন (বিপিসি) এর অঙ্গ প্রতিষ্ঠান পদ্ম অয়েল কোম্পানি লিমিটেড (পিওসিএল) এর মাধ্যমে বিভিন্ন বিমানবন্দরে বিমানের জ্বালানি তেল জেট এ-১ সরবরাহ করছে। বর্তমানে বাংলাদেশ জেট এ-১ চাহিদা প্রায় চার লক্ষ মেট্টিক টন যার সিংহভাগ হযরত শাহজালাল আর্ন্তজাতিক বিমানবন্দর থেকে সরবরাহ করা হয়। সম্পাদনা: তরিকুল ইসলাম সুমন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ