প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

গোরক্ষার নামে আবার হত্যা রাজস্থানের আলোয়ারে

আশিস গুপ্ত, নয়াদিল্লি : পশ্চিম ভারতের রাজ্য ,রাজস্থানের আলোয়ারে ফের গোরক্ষকদের তাণ্ডব। শনিবার রাতে আলোয়ার থেকে ভরতপুর যাওয়ার পথে গরু পাচারকারী সন্দেহে ৩জনের উপর হামলা চালাল গোরক্ষকবাহিনী। ৩ জনকেই মারধর করে গুলি করে হত্যার চেষ্টা করা হয়। তাঁদের মধ্যে উমর খান  ঘটনাস্থলেই মারা যান।পরে মৃতদেহটিকে রেল লাইনে ছুড়ে ফেলে দেয় হামলাকারীরা। আহত দুজনের মধ্যে  আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তাহির খান।আর একজন জাভেদ খান এখনো নিখোঁজ। উমর মোহম্মদের  দেহ ময়নাতদন্তের জন্য আলোয়ারের রাজীব গান্ধী জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। তারপরেই হাসপাতালের সামনে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন উমর মোহম্মদের  গ্রামের লোকেরা।

 গত শুক্রবার এই ঘটনা ঘটেছে রাজস্থানের আলওয়ার জেলায় গোবিন্দ গড়ের কাছে ফাহারি গ্রামে।স্থানীয় সংবাদমাধ্যম জানাচ্ছে, ওই দিন দুই সঙ্গীকে নিয়ে উমর মহম্মদ নামে এক জন হরিয়ানার মেওয়াট থেকে গরু নিয়ে যাচ্ছিলেন রাজস্থানের ভরতপুরে। ওই সময়েই তাঁদের ঘিরে ফেলে গোরক্ষকরা। প্রথমে শুরু হয় গণপিটুনি। তার পর উমরকে লক্ষ্য করে এলোপাথাড়ি গুলি চালায় গোরক্ষকরা। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় উমরের।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, উমরের দেহটিকে পরে রেললাইনে ছুড়ে ফেলে দেয় গোরক্ষকরা।পুলিশ মুখে কুলুপ এঁটে থাকলেও গুলিতে উমরের মৃত্যু হয়েছে বলে প্রশাসনের তরফে স্বীকার করা হয়েছে। উমরের স্ত্রী ও ৮ সন্তান রয়েছে। গণপিটুনির পর উমরের সঙ্গী বাকি দু’জন পালিয়ে যান। তার মধ্যে তাহির খান  ভর্তি হন রাজস্থান-হরিয়ানা সীমান্তের কাছে জিরকা ফিরোজপুরের  হাসপাতালে।এখনো নিখোঁজ জাভেদ খান। ঘটনার পর এলাকাজুড়ে বিক্ষোভ শুরু হয়েছে, পুলিশি নিষ্ক্রিয়তার প্রতিবাদে। বিক্ষোভকারীদের অভিযোগ, পুলিশের সামনেই উমরকে গুলি করে খুন করে গোরক্ষকরা। সব কিছু দেখেও পুলিশ চোখ বুঁজে ছিল। স্থানীয় বাসিন্দারা অপরাধীদের গ্রেফতারের দাবি জানালেও পুলিশ এখনও পর্যন্ত কোনও এফআইআর করেনি বলে অভিযোগ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ