প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সমাবেশের অনুমতি প্রসঙ্গে আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী
সমাবেশ গণতান্ত্রিক অধিকার, বিএনপি এতদিন বঞ্চিত ছিলো

নাসরিন বৃষ্টি: বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, সামাবেশ রাজনৈতিক দলগুলোর গণতান্ত্রিক অধিকার। কোন গণতান্ত্রিক দেশে অনুমতির রাজনীতি নেই। সুতরাং সমাবেশের অনুমতির বিষয়ে প্রশ্নই থাকে না। বিএনপি এতদিন সমাবেশের অধিকার থেকে বঞ্চিত ছিলো কিন্তু আশা করছি সরকার অনুধাবন করতে পেরেছেন অগণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় দেশ বেশিদিন চলতে পারে না।

দুই বছর পর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আজ (রোববার/১২ নভেম্বর) বিএনপির সমাবেশ করবে। সমাবেশের অনুমতি ও সমাবেশ প্রসঙ্গে বিবিসি বাংলার এক সাক্ষাৎকারে তিনি এসব কথা বলেন। সর্বশেষ ২০১৬ সালে ৫ই জানুয়ারি নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

আজকের এই সমাবেশ দল জনগণকে কোন বিশেষ বার্তা দিতে চাচ্ছে কিনা সে প্রসঙ্গে আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী, ৭ই নভেম্বর উপলক্ষে এই সমাবেশের আয়োজন করা হয়েছে। এই দিনেই আমরা বহুদলীয় গণতন্ত্র এবং গণমাধ্যমের স্বাধীনতাসহ সকল নাগরিকের মুক্ত চিন্তাধারা এই দিনটির মধ্যে পেয়েছিলাম। তাই দিনটি দেশের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ বলে পালন করি। কিন্তু গত দুই বছর যাবৎ অনুমতির অভাবে দিনটি পালন করা হয়নি। এ বছর ৭ তারিখের জায়গায় ১২তারিখে পালন করা হচ্ছে।

এই সমাবেশ কি নির্বাচনমুখী কর্মসূচির অংশ?

জবাবে আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেন, না। বাংলাদেশের ইতিহাসে দিনটি অতিগুরুত্বপূর্ণ একটি দিন বিধায় আমরা দিনটি পালন করে থাকি। বেগম খালেদা জিয়া জনগণের নিকট অতিজনপ্রিয় বলে তার সভার জন্য জনগণ উৎফুল্ল থাকবে। ফলে আগামী নির্বাচনকে সামনে রেখে উৎফুল্লের মাত্রাটা কিছুটা বেশি থাকবে, এটাই স্বাভাবিক।

বিএনপি বেশ কিছুদিন ধরে নেতাকর্মীদের কর্মদ্যোমী করার চেষ্টা করছে। আজকে এই সমাবেশ কি এক্ষেত্রে নতুন ভূমিকা রাখবে?

প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, শুধু বিএনপির ক্ষেত্রে নয়, বাংলাদেশের মানুষ তাদের গণতান্ত্রিক অধিকার ও ভোটাধিকার ফিরে পাবার প্রত্যাশায় এই সমাবেশে অগ্রসর হচ্ছে।

 

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ