প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সৌদি ইরান ‘ছায়াযুদ্ধে’ জড়িয়ে পড়ছে ইসরাইল

আনন্দ মোস্তফা: মধ্যপ্রাচ্যের নেতৃত্ব নিয়ে ইরান ও সৌদি আরবের মধ্যে দীর্ঘদিন যাবৎ দ্বন্দ্ব চলছে। বিশেষজ্ঞরা একে শিয়া-সুন্নীর নেতৃত্বের দ্বন্দ্ব বলেও মনে করে থাকেন। বিগত তিন বছর যাবৎ ইয়েমেনে চলা গৃহযুদ্ধ মূলত সৌদি-ইরানের ছায়াযুদ্ধ। সুন্নি অধ্যুষিত সৌদি ইয়েমেনের সরকারকে এবং শিয়া অধ্যুষিত ইরান হুথি বিদ্রোহীদের সমর্থন দিচ্ছে। সম্প্রতি লেবাননকে কেন্দ্র করে আরব উপত্যকায় সংকট ঘনীভূত হচ্ছে। এ সংকটে যোগ দিয়েছে ইসরায়েল।

অবস্থাদৃষ্টে মনে হচ্ছে সুন্নি মুসলিমদের নেতৃত্ব দেয়া সৌদি ও তার মিত্রদের নতুন নেতৃত্বে আসছে ইসরাইল। সম্প্রতি ফাঁস হওয়া এক কূটনৈতিক বার্তায় দেখা যায়, ইসরাইল তার সকল দূতাবাসকে দূত নিয়োগের মাধ্যমে লেবানন সংকটে সৌদি আরবকে সমর্থন ও সহযোগিতা করার নির্দেশ দিয়েছে। ইসরাইলি টেলিভিশন ‘চ্যানেল ১০’ এর মাধ্যমে ফাঁস হওয়া পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ওই বার্তায় ইরান ও হেজবুল্লাহর ‘বিধ্বংসী’ কর্মকান্ড বন্ধ করার জন্য জোর দেয়া হয়।

ইরান ও হিজবুল্লাহকে ঠেকাতে ইসরাইলের সাথে সৌদির মনোভাবে প্রকটভাবে মিল পাওয়া যায়। আরব রাষ্ট্রগুলোর অভ্যন্তরীণ বিষয়ে ইসরাইলের এরকম হস্তক্ষেপ খুবই ‘অস্বাভাবিক’ বলে আন্তর্জাতিক রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা মতামত দিয়েছেন।

সৌদি আরবও ইরান-হেজবুল্লাহ প্রতিরোধে ইসরাইলকে মিত্র করতে পারে বলে ধারণা করা যায়। সৌদি পররাষ্ট্র নীতি ও অতীত ইতিহাস পর্যবেক্ষণ করলেও সৌদি-ইসরাইল অসম্ভব কিছু নয় বলেই মনে করা হচ্ছে। আরব দেশগুলোর নেতৃত্বের দ্বন্দে সৌদি বরাবরই পশ্চিমা শক্তি ও তাদের মিত্রদের উপর ভরসা করেছে। আর এই মিত্রতাই আরব দ্বন্দে ইসরাইলকে সৌদি আরবের পাশে দেখা যেতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ