প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

যশোরে আবারও গুলিতে আহত দোকান কর্মচারি

জাহিদুল কবীর মিল্টন,যশোর প্রতিনিধি : যশোরে আবারো গুলি বর্ষনের ঘটনা ঘটেছে। শহরের রেলগেট পশ্চিমপাড়া এলাকায় রবিউল ইসলাম নামে (১৮) এক মোটরপার্টস দোকানের কর্মচারি দুর্বৃত্তদের গুলিতে আহত হয়েছে। দুবৃত্তদের ছোড়া গুলি রবিউলের পেটের বামপাশে বিদ্ধ হয়। সে ওই এলাকার মুন্নার বাড়ির ভাড়াটিয়া নুরুল ইসলাম ভূইয়ার ছেলে। আহত গুলিবিদ্ধ রবিউলকে আড়াইশ শয্যার যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তার অবস্থা আশংকাজনক।

রবিউলের পিতা নুরুল ইসলাম জানান, শুক্রবার বিকেলে রেলগেট এলাকার সন্ত্রাসী আশিকের নেতৃত্বে সাইদুর, তরিকুলসহ ৮/১০ জনের একদল সন্ত্রাসী খড়কীর ইউসুপ মেম্বারের ছেলে ফিরোজকে গুলি করার উদ্দেশ্যে তাড়া করে। ফিরোজ দৌড়ে রবিউলদের বাড়িতে আশ্রয় নেয়। রবিউলের মা ও রবিউল সন্ত্রাসীদের বাধা দিলে সন্ত্রাসী আশিক রবিউলকে গুলি করে। এসময় ফিরোজ দৌড়ে পালিয়ে যায়।

গুলি রবিউলের পেটের বামপাশে বিদ্ধ হয়। স্থানীয়রা তাকে হাসপাতালে ভর্তি করে। জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত ডাক্তার কল্লোল কুমার সাহা জানান, রবিউলের অবস্থা আশংকাজনক। তাকে ওটিতে নেওয়া হয়েছে। সেখান থেকে বের না হওয়া পর্যন্ত কিছু বলা যাচ্ছে না।

এব্যাপারে কোতয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আজমল হুদা জানান,রেলগেট পশ্চিমপাড়া এলাকায় কয়েকজন সন্ত্রাসীকে এলাকাবাসি ধরতে গেলে তারা গুলি ছুড়ে পালিয়ে যায়। এতে রবিউল গুলিবিদ্ধ হয়।

উল্লেখ্য,এর আগে ২৮ অক্টোবর সন্ধ্যা রাতে শহরের বেজপাড়ায় সন্ত্রাসীদের গুলিতে নিহত হন জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি ইমন। এর ৯ দিন পর ৬ নভেম্বর দিনে দুপুরে শহরের পুলিশ লাইন টালিখোলা এলাকায় জেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মইনুদ্দিন মিঠুকে হত্যার উদ্দেশ্যে অজ্ঞাত সন্ত্রাসীরা গুলি করে।

এভাবে একের পর এক অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরা যশোর শহরে সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চালালেও থেকে যাচ্ছে ধরা ছোয়ার বাইরে। আর পুলিশ প্রশাসন এদেরকে আইনের আওতায় না এনে অজ্ঞাত কারণে নিরব ভূমিকা পালন করছে। ফলে যশোরে সাধারণ মানুষ সন্ত্রাসীদের হাতে জিম্মি হয়ে পড়েছে। মানুষের জানমালের কোন নিরাপত্তা নেই। বর্তমানে সন্ত্রাসীদের নিয়ন্ত্রনে গোটা যশোর শহর।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ