প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কালকিনিতে প্রেমিকার বিয়েতে বাঁধা দেয়ায় প্রেমিককে কুপিয়ে জখম

এইচ এম মিলন, কালকিনি (মাদারীপুর): মাদারীপুরের কালকিনিতে প্রেমিকার বিয়েতে বাঁধা দেয়ায় ইমরান নামের এক প্রেমিককে কুপিয়ে জখম করেছে প্রেমিকার ভাই। তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সে পুর্বদর্শনা গ্রামের সিরাজ দেওয়ানের ছেলে।

এ হামলার প্রতিবাদে আজ বৃহস্পতিবার সকালে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে ভুক্তভোগী প্রেমিকের পরিবার।

এলাকাবাসী ও ভুক্তভোগীর পরিবার সুত্রে জানা গেছে, উপজেলার ডাসার এলাকার শশীকর শহীদ স্মৃতি কলেজের এইচএসসি দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র ইমরান দেওয়ানের সাথে দর্শনা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেনীর এক ছাত্রীর দীর্ঘদিন ধরে প্রেমের সর্ম্পক চলে আসছিল। কিন্তু ওই প্রেমিকার পরিবার হঠাৎ করে অন্য জায়গায় বিয়ে ঠিক করেন। কিন্তু বিয়ে না হওয়ার জন্য বাঁধা প্রদান করেন প্রেমিক ইমরান। এতে করে ক্ষিপ্ত হয়ে গতকাল বুধবার বিকেলে ওই প্রেমিকার ভাই রিপন সরদার তার লোকজন নিয়ে দেশী অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে ইমরানকে তার নিজ ঘরে ঢুকে কুপিয়ে জখম করে ফেলে রাখে। এবং এসময় বাড়িতে ভাংচুর চলানো হয়। পরে স্থানীয় লোকজন ইমরানকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেখানে তার অবস্থা অবনতি হলে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এদিকে এ হামলার ঘটনায় আহতের চাচা মিজান দেওয়ান ডাসার থানায় অভিযোগ করতে গেলে উল্টো তাকে আটক করেন থানা পুলিশ। তাই এ ঘটনার প্রতিবাদে আজ বৃহস্পতিবার সকালে দর্শনায় স্থানীয় মান্যগন্য লোকজনের অংশগ্রহনে ওই আহতের পরিবারের উদ্যোগে বিক্ষোভ সমাবেশ করা হয়েছে। এসময় বক্তব্য রাখেন ইউপি সদস্য শাহজাহান মাতুব্বর, আবদুর রহমান, বেল্লাল মুন্সি ও হানিফ মাতুব্বরসহ অনেকে। বক্তারা বলেন, ইমরানকে কুপিয়ে জখম করা হয়। এ ঘটনায় মিজান থানায় অভিযোগ করতে গেলে তার কাছে এসআই নূরুল ইসলাম মিয়া ঘুষ দাবি করেন। তাকে ঘুষের টাকা না দিলে মিজানকে আটক করে রাখেন। আমরা হামলাকারীর বিচার চাই।

স্কুলছাত্রীর চাচা সাগর আহম্মেদ দুলাল বলেন, ইমরান আমার ভাতিজির বিয়েতে বাঁধা দেয়ায় এ ঘটনা ঘটেছে।

এ ব্যাপারে ডাসার থানার এসআই নুরুল ইসলাম মিয়া বলেন, ঘুষের দাবির ঘটনা মিথ্যা। এটা আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচার।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ