প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কক্সবাজার সদর হাসপাতালে এইচআইভিতে আক্রান্ত ৬১ রোহিঙ্গা

ফরহাদ আমিন,টেকনাফ (কক্সবাজার) : মিয়ানমারে সেনাবাহিনী ও রাখাইন অত্যাচার উগ্রবাদী সন্ত্রাসীদের হাতে নির্যাতনের শিকার হয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের মাঝে নানা সংক্রামক রোগব্যাধি দেখা দিয়েছে। এর মধ্যে ঝুঁকিপূর্ণ এইচআইভি জীবাণু বহন করছে ৬১জন রোহিঙ্গা।

তার মধ্যে নারী ও শিশু সংখ্যা ৪২ এবং পুরুষের সংখ্যা ১৯।কক্সবাজার জেলা সিভিল সার্জন আবদুস সালাম বলেন,গত ২৫ আগষ্ট থেকে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের মাঝে বৃহসপতিবার পর্যন্ত ৬১ জন এইচআইভি রোগী শনাক্ত হয়েছে। এদের সবার চিকিৎসা চলছে। ইতোমধ্যে এইচআইভি রোগে আক্রান্ত এক রোহিঙ্গা মহিলার মুত্যু হয়েছে।

বাকিদের কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।তিনি আরো বলেন, শনাক্ত রোগীদের মধ্যে বেশিরভাগ রোগী নিজেরা এইচআইভি আক্রান্ত জেনে চিকিৎসা নিতে এসেছেন।

এত রোহিঙ্গার মধ্যে আরো অসংখ্য এইচআইভি জীবাণু বহনকারী থাকতে পারে। একসাথে এত রোহিঙ্গার মাঝে এই রোগ শনাক্ত করা কঠিন। তাই রোহিঙ্গা ক্যাম্পে টার্গেট করে শনাক্তের কাজ চলছে।

সিভিল সার্জন বলেন, বিশ্বের এইচআইভি ঝুঁকিপূর্ণ দেশের মধ্যে মিয়ানমার শীর্ষ তালিকায় রয়েছে।

তাই মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের মাঝে রয়েছে প্রচুর এইচআইভি পজেটিভ রোগী। রোহিঙ্গাদের মাঝে এইচআইভি রোগী ক্রমান্বয়ে শনাক্তের সংখ্যা বাড়ছে।

রোহিঙ্গাদের মধ্যে কেউ অন্য রোগের চিকিৎসা নিতে আসলে তাদের এইচআইভি পরীক্ষা করা হয়।তিনি বলেন, বর্তমানে ১০০ জন এমবিবিএস, বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক, ইন্টার্নি চিকিৎসক, মেডিকেল স্টুডেন্টসহ ২ হাজার জনবল রোহিঙ্গা ক্যাম্পে চিকিৎসা সেবায় নিয়োজিত রয়েছে। চিকিৎসা ক্যাম্পেইন এইচআইভি শনাক্তসহ সংক্রামক রোগিদের শনাক্ত করতে বিশেষ গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ