প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মিয়ানমারের কূটনীতি এতোটা নিচু কেন আমি বুঝতে পারছি না (ভিডিও)

ওয়ালি উল্লাহ সিরাজ: বাংলাদেশ রোহিঙ্গাদের বিষয়ে সমাধান চায় বলেই তো বাংলাদেশের মন্ত্রী মিয়ানমারে গিয়েছে। আমাদের মন্ত্রী যাওয়ার পরে মিয়ানমার যে কথা বলেছেন সেটা দিয়ে কখনো বোঝা যায় না যে তারা সমস্যার সমাধান করতে চান। বাংলাদেশের সৎ ইচ্ছার কোন অভাব ছিলো না। কিন্তু এই সৎ ইচ্ছাটাকে মিয়ানমার তাচ্ছিল্য করেছে। মিয়ানমারের ভাষ্য হচ্ছে রোহিঙ্গারা আছে বলেই বাংলাদেশ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের কাছ থেকে সাহায্য নিতে পারছে। মিয়ানমারের এ কথা একেবারে মিথ্যে কথা। এই বিষয়টি যে কেউ বুঝতে পারে। আমি আসলে অবাগ হয়ে গেলাম একারণে যে মিয়ানমারের কূটনীতি কিভাবে এতোটা নিচে নামতে পারে?

বুধবার রাত্রে চ্যানেল আইয়ের আজকের সংবাদপত্র অনুষ্ঠানে এমন মন্তব্য করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনিয়র অধ্যাপক শাহিদুজ্জামন।

তিনি আরো বলেন, আসলে একটি বিষয় স্পষ্টই বোঝা যাচ্ছে যে রোহিঙ্গাদের ফেরত নেওয়ার বিষয়ে রোহিঙ্গাদের তেমন কোন ইচ্ছাই নেই। তার থেকেও বড় কথা হচ্ছে এখনো রোহিঙ্গারা বাংলাদেশে আসছে। আসলে মিয়ানমারের আর্মি সেদেশের শাসকদের দৃষ্টি ভঙ্গি পরিবর্তন করে দিয়েছে। বিনা অপরাধে নিরীহ মানুষের উপর আর্মিরা নির্যাতন চালাচ্ছে তথচ সেদেশের শাসকগুষ্ঠি নিরবভূমিকা পালন করছে। শুধু তাই নয় বরং তারা বরং আর্মিদের পক্ষে কথা বলছে। এটা আসলে খুবই দুঃখজনক একটি বিষয়।

অধ্যাপক শাহিদুজ্জামন আরো বলেন, আমার বিশ্বাস যদি জাতিসংঘের মাধ্যমে বলপ্রয়োগ করার প্রয়োজন দেখা দেয় তাহলে বাংলাদেশ সেখানে অংশগ্রহণ করবে। এবং এই রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে পাঠানোর বিষয়ে সর্বাত্মক চেষ্টা করবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ