প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

চট্টগ্রামে রাসায়নিক পরীক্ষাগার চালু

হ্যাপী আক্তার: চট্টগ্রামে প্রথমবারের মতো রাসায়নিক পরীক্ষাগার চালু করেছে পরিবেশ অধিদপ্তর। দূষণ সংক্রান্ত পরীক্ষার পাশাপাশি আমদানি রফতানির পণ্যও পরীক্ষা করা যাবে চট্টগ্রামের পরীক্ষাগারে। অত্যাধুনিক যন্ত্রপাতি সমৃদ্ধ এই পরীক্ষাগার গবেষণার ক্ষেত্রেও কাজে লাগবে বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা। সূত্র: যমুনা টিভি

প্রায় সাড়ে ১৪ কোটি টাকা ব্যয়ে ৪২ ধরনের সর্বাধুনিক যন্ত্রপাতি স্থাপন করা হয়েছে সুবিশাল এই ল্যাবে। রাসায়নিক পরীক্ষাগার যেখানে মাটি, পানি, বাতাস ও শিল্পকারখানা নিয়ে একশরও বেশি পরীক্ষা করা সম্ভব এই ল্যাবে।

এছাড়া খাদ্যদ্রব ও ফলমূল এবং বন্দর দিয়ে আমদানি করা ধাতব পদার্থের পরীক্ষাও করা যাবে এই ল্যাবে। আমেরিকা ও জার্মানি থেকে আনা এইসব যন্ত্রপাতি দেশের আর কোন ল্যাবে নেই বলে দাবি পরিবেশ অধিদপ্তর।

চট্টগ্রাম জেলা পরিবেশ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক জমির উদ্দিন সরকার বলেন, বন্দর দিয়ে বাংলাদেশে যেসব জিনিসপত্রগুলো প্রবেশ করছে তার সাথে কোন ধরণের অবৈধ কোন জিনিসপত্র প্রবেশ করছে কিনা সে বিষয়ে পরীক্ষা করা যাবে বলে তিনি জানান।

চট্টগ্রাম পরিবেশ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক রইসুল আলম মন্ডল বলেন, যে কোন ধরণের ইন্ড্রাস্ট্রিজ এবং আমাদের নরমাল যে বিষয়গুলো পরীক্ষা করা দরকার যে বিষয়ে সক্ষমতা অর্জন করেছেন বলে তিনি জানান।

বন্দর দিয়ে আসা আমদানি ও রফতানি করা পণ্য পরীক্ষার জন্য আগে ঢাকায় পাঠাতে হতো। বর্তমানে চট্টগ্রামে পরীক্ষার সুযোগ সৃষ্টি হওয়ার ফলে কমবে ব্যবসায়ীদের হয়রানী ও সময়ও।

সর্বাধুনিক পরীক্ষাগার চট্টগ্রামের পরিবেশ বিষয়ক গবেষণা ও একাডেমিকের নতুন দিগন্তের সূচনা করবেন বলে মনে করেন গবেষকরা।

চট্টগ্রাম কলেজ, রাসায়নিক বিভাগের অধ্যাপক ইদ্রিস আলী বলেন, চট্টগ্রামের পরিবেশ গবেষণাকে এবং পরিবেশ অধিদপ্তরকে বহুদূর এগিয়ে নিয়ে যাবে চট্টগ্রামের ল্যাবের মাধ্যমে।

নদী গবেষক ড. নজরুল কিবরিয়া বলেন, আমরা যারা গবেষণার কাজ করি, ছাত্র-ছাত্রী যারা গবেষণার কাজ করে সবার জন্য বিশাল একটি বাধা দূর করে দিল চট্টগ্রামের গবেষণা কেন্দ্র স্থাপনের মাধ্যমে।

তবে দক্ষ জনবল দিয়ে সার্বক্ষণিক ল্যাবটি পরিচালনা করাই হবে বড় ধরণের চ্যালেঞ্জ বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত