প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ইয়েমেনের প্রেসিডেন্ট হাদি রিয়াদে গৃহবন্দী

ইমরুল শাহেদ : ইয়েমেনের কর্মকর্তারা বার্তা সংস্থা এ্যাসোসিয়েট প্রেসকে বলেছেন, ইয়েমেনের প্রেসিডেন্ট, তার সন্তান, মন্ত্রী ও সেনা কর্মকর্তাদের দীর্ঘ কয়েক মাস থেকে সৌদি আরবের রাজধানী রিয়াদে গৃহবন্দী করে রাখা হয়েছে, তারা যাতে ইয়েমেনে ফিরে যেতে না পারেন। কর্মকর্তারা বলেছেন, তাকে বন্দী করে রাখার নেপথ্যে রয়েছে প্রেসিডেন্ট আবদ-রাব্বু মনসুর হাদি এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতের মধ্যে শত্রæতা। হুথি বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে পরিচালিত সৌদি অভিযানের এটাও একটা অংশ। একইসঙ্গে সৌদি জোট দক্ষিণাঞ্চলীয় ইয়েমেনে আধিপত্য বিস্তার করতে চায়। দেশটির এ অঞ্চলটি হুথিদের নিয়ন্ত্রণে নেই। জোটের যুদ্ধ শুরু হওয়ার আগে থেকেই হাদি এবং সরকারের কয়েকজন কর্মকর্তা রিয়াদে অবস্থান করছেন।

সৌদি জোটের মূল চালিকা শক্তি দুটি দেশ এবং এগুলো হলো সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাত। আল-জাজিরা বলেছে, হাদি সরকারের রক্ষাকবচ হিসেবে তারা যুদ্ধ করছেন – এটা হলো একটা লোক দেখানো ব্যাপার। হুথিরা হলো শিয়া। প্রকৃতপক্ষে তাদের বিরুদ্ধেই যুদ্ধ করছে সৌদি জোট। ২০১৫ সাল থেকেই সৌদি জোট বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে আকাশ হামলা চালিয়ে আসছে। ইয়েমেনের দক্ষিণাঞ্চলে সংযুক্ত আরব আমিরাত সেনা বাহিনী খুব দৃঢ়ভাবে অবস্থান নিয়েছে। কিন্তু হুথিরা খুব দৃঢ়ভাবেই উত্তরাঞ্চল নিয়ন্ত্রণ করছে।

রোববার সৌদি আরব ইয়েমেনের যোগাযোগ ব্যবস্থার উপর অবরোধ আরোপ করেছে। আকাশ, জল ও স্থল – সব পথই বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। এতে জাতিসংঘ ত্রাণ বিতরণে সমস্যা হচ্ছে বলে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে। হুথি নিয়ন্ত্রিত এলাকা থেকে ত্রাণের জাহাজগুলোকে সরে যেতে বলেছে জাতিসংঘ। দেশটির একটি মাত্র বিমানবন্দরও ব্যবহার করা যাচ্ছে না অবরোধের কারণে। সুতরাং ত্রাণের বিমানগুলোর যাতায়াতও বাতিল করে দেওয়া হয়েছে। সূত্র : আল-জাজিরা

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ