প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মার্চ থেকে চালু হবে মোবাইল নম্বর ঠিক রেখে অপারেটর পরিবর্তনের সুবিধা

নিজস্ব প্রতেবদক : আগামী বছরের মার্চ থেকে মোবাইল ফোনের নম্বর ঠিক রেখে অপারেটর পরিবর্তন (মোবাইল নম্বর পোর্টেবিলিটি-এমএনপি) প্রক্রিয়া শুরু হবে বলে জানিয়েছেন বিটিআরসি চেয়ারম্যান ড. শাহজাহান মাহমুদ। মঙ্গলবার দুপুরে বিটিআরসি কার্যালয়ে এই সুবিধা চালুর প্রক্রিয়া সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরেন তিনি।

বিটিআরসি চেয়ারম্যান বলেন, ‘মোবাইল ফোনের নম্বর ঠিক রেখে অপারেটর পরিবর্তনের প্রক্রিয়া আরেক ধাপ এগোল। বাংলাদেশ ও স্লোভেনিয়ার যৌথ কনসোর্টিয়াম ইনফোজিলিয়ান বিডি টেলিটেক এই সেবা প্রদান করবে। আশা করি আগামী বছরের মার্চের মধ্যেই গ্রাহকরা এই সুবিধা পাবেন।’

এই সুবিধা চালুর ফলে একজন গ্রাহক তার মোবাইল ফোনের নম্বর ঠিক রেখে অপারেটর পরিবর্তন করতে পারবেন। তবে এক অপারেটর পরিবর্তন করে অন্য অপারেটরে যেতে ৯০ দিন অপেক্ষা করতে হবে। অপারেটর পরিবর্তনের খরচ ৩০ টাকা।

এমএনপি চালু হলে এক অপারেটরের নম্বরে অন্য অপারেটরের সংযোগ নেওয়া যাবে। গ্রাহক যে অপারেটরের সেবা পছন্দ করবে, বিনা দ্বিধায় সেই অপারেটরের সংযোগ নিতে পারবে। এ জন্য নিজের ফোন নম্বরটিও পাল্টাতে হবে না। এ সেবা প্রবর্তনের ফলে মোবাইল অপারেটরদের মধ্যে গুণগত সেবা প্রদানের প্রতিযোগিতা এবং মোবাইল গ্রাহক সংখ্যা বৃদ্ধি পাবে বলে আশা করা যায়

বর্তমানে বিশ্বের ৭২ টি দেশে এ সুবিধা চালু রয়েছে। প্রতিবেশী দেশ ভারতে ২০১১ সালে এবং পাকিস্তানে উক্ত সেবা ২০০৭ সাল থেকে চালু রয়েছে।

ড. শাহজাহান মাহমুদ জানান, ইনফোজিলিয়ান ছাড়াও এমএনপি সেবা প্রদানের জন্য আরও চারটি কনসোর্টিয়াম সরকারি ক্রয় প্রক্রিয়ায় অংশ নেয়। যৌথ এ প্রতিষ্ঠানগুলো হচ্ছে বাংলাদেশ ও লিথুনিয়ার যৌথ কোম্পানি গ্রিন টেক মিডিয়াফোন লিমিটেড, ব্রাজিল বাংলাদেশ কনসোর্টিয়াম, বাংলাদেশ ও পোল্যান্ডের যৌথ কোম্পানি রিভ নম্বর লি. এবং বাংলাদেশ ও মিশরের যৌথ কোম্পানি রয়েল গ্রিন লিঃ।

এমএনপি লাইসেন্স প্রদান সংক্রান্ত টেন্ডার কার্যক্রমে অংশগ্রহণকারী কোম্পানিগুলোর মধ্যে ইনফোজিলিয়ান সর্বোচ্চ নম্বর পেয়ে এ সেবা প্রদানের যোগ্যতা অর্জন করে।

অনুষ্ঠানে জানানো হয় ১৫ অক্টোবর ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের অনুমোদনের প্রেক্ষিতে বিটিআরসি কর্তৃক লাইসেন্স প্রদানের পরবর্তী কার্যক্রম গৃহীত হয়। পরবর্তীতে কমিশনের ২০৮তম সভায় সরকার পূর্বানুমোদন জ্ঞাপন করায় এমএনপি গাইডলাইনের সকল শর্ত পালন সাপেক্ষে উক্ত প্রতিষ্ঠানকে লাইসেন্স প্রদানের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

এরই প্রেক্ষিতে ১ নভেম্বর ইনফোজিলিয়ান বিডি টেলিটেককে লাইসেন্স প্রাপ্তি সংক্রান্ত একটি নোটফিকিশেন পত্র ইস্যু করা হয়েছে। লাইসেন্স প্রাপ্তির পরবর্তী ৬ মাসের মধ্যে প্রতিষ্ঠানটিকে দেশের মোবাইল গ্রাহকের কমপক্ষে ১ শতাংশ, ১ বছরের মধ্যে ৫ শতাংশ এবং ৫ বছরের মধ্যে ১০ শতাংশ-কে এ সেবার আওতায় নিয়ে আসতে হবে। একজন সেবা গ্রহীতা ৩০ টাকার বিনিময়ে প্রতিবারের জন্য অপারেটর বদল করতে পারবে ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ