প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

‘আমাদের নির্বাচন কমিশন শক্তিশালী হলে তত্ত্বাবধায়ক-সহায়ক সরকারের প্রশ্ন আসত না’

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক শেখ হাফিজুর রহমান কার্জন বলে, নির্বাচনে জয়ে ভোটের আনুপাতিক হারে ক্ষমতা বন্টন করলে তা আমাদরে গণতন্ত্রকে যেমন শক্তিশালী করবে। তেমনি রাজনীতিক সহিংসতা অনেকাংশে কমিয়ে নিয়ে আসবে।

সঞ্চালনায় একাত্তর টেলিভিশনের নিয়মিত অনুষ্ঠান একাত্তর জার্নালে তিনি একথা বলেন। এছাড়া ছিলেন ডিবিসি’র সম্পাদক প্রণব সাহা।

শেখ হাফিজুর রহমান কার্জন বলে, আমাদের যেসকল প্রতিষ্ঠান গণতন্ত্রের জন্য গুরুত্বপূর্ণ যেমন স্থানীয় সরকার, নির্বাচন কমিশন। আমার মনে হয়, একটা শক্তিশালী নির্বাচন কমিশন থাকলে তাহলে তত্ত্বাবধায় বা সহায়ক সরকারের কথা আসত না। কারণ তারা একটা সুষ্ঠু একটা নির্বাচন অনুষ্ঠিত করতে পারত। আমরা ১৯৯৩-৯৪ সাল থেকে নির্বাচনের সময় একটা ব্যাপার নিয়ে আর্বতিত হচ্ছি। আমাদের সংসদ এক কক্ষ বিশিষ্ট। সেটা দুই কক্ষ বিশিষ্ট হবে কিনা। আমরা দীর্ঘ দিন নির্বাচন পদ্ধতি অনুসরণ করছি। যেমন, একটা নির্বাচনে আওয়ামী লীগ ভোট পেল ৪৩ শতাংশ, বিএনপি পেল ৪০ শতাংশ। এখানে একদল একটু বেশি পাওয়া সব ক্ষমতা সেই পেয়ে দলই পেয়ে যায়। কিন্তু অন্যান্য দেশে আনুপাতিক হারে ক্ষমতা বন্টন করা হয়। এই পদ্ধতি যদি আমরা চালু করতে পারি। তাহলে সেটা আমাদরে গণতন্ত্রকে যেমন শক্তিশালী করবে। তেমনি রাজনীতিক সহিংসতা দেখি সেটা অনেকাংশে কমিয়ে নিয়ে আসবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত