প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

রোহিঙ্গা সংকট
দুনিয়ার দৃষ্টি থার্ড কমিটির বৈঠককে ঘিরে

ডেস্ক রিপোর্ট : রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে মিয়ানমারের ওপর চাপ বাড়াতে এবার জাতিসংঘ থার্ড কমিটির শক্তিশালী অবস্থান চায় ঢাকা। অন্তত রাখাইনে সহিংসতা বন্ধ এবং রোহিঙ্গাদের ফেরানোর প্রশ্নে থার্ড কমিটির বৈঠকে একটি রেজুলেশন আশা করে বাংলাদেশ। এ নিয়ে তৃতীয় একটি দেশের তরফে আনুষ্ঠানিক প্রস্তাবনাও দাখিল করা হয়েছে। আগামী ১৬ই নভেম্বর সেই প্রস্তাবনার বিষয়ে ভোটাভুটি হবে। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা বলছেন, থার্ড কমিটির বৈঠকে প্রস্তাবিত রেজুলেশনের পক্ষে ভোট দিতে এরই মধ্যে বন্ধু-উন্নয়ন সহযোগী রাষ্ট্রগুলোর আনুষ্ঠানিক সমর্থন কামনা করেছে বাংলাদেশ। এদিকে রোহিঙ্গা সংকটের মাঠ পর্যায়ের পরিস্থিতি মূল্যায়নে জাতিসংঘের কর্মকর্তারা আজ থেকে কক্সবাজারে তাদের সিরিজ সফর শুরু করছেন।

রাখাইন সংকটে সৃষ্ট মানবিক বিপর্যয়, নাগরিকদের বলপূর্বক বাস্তুচ্যুত করাসহ মানবাধিকার লঙ্ঘনের গুরুতর অভিযোগ আমলে নিয়ে জাতিসংঘ টিম তাদের মূল্যায়ন ও পর্যালোচনা শুরু করেছে। ঢাকায় জাতিসংঘ ডেস্কের কর্মকর্তারা বলছেন, প্রতিনিধি দলের সদস্যরা এবারের সিরিজ সফরে বর্মী বর্বরতার শিকার নারী ও শিশুদের বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য সংগ্রহ করবেন। তারা যৌন সহিংসতার শিকার নারী ও শিশুদের সঙ্গে কথা বলবেন। এ নিয়ে জাতিসংঘ কর্মকর্তারা মহাসচিব অ্যান্তনিও গুতেরেঁজ এবং নিরাপত্তা পরিষদকে সরাসরি রিপোর্ট করবেন।

ঢাকা ও নিউ ইয়র্কের কূটনৈতিক সূত্র বলছে, জাতিসংঘ মহাসচিবের সংঘাতময় পরিস্থিতিতে যৌন সহিংসতা বিষয়ক বিশেষ দূত প্রমিলা পাট্টিনের নেতৃত্বে একটি উচ্চ পর্যায়ের প্রতিনিধি দল রোববার থেকে ঢাকায় রয়েছে। এখানে তারা সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন পর্যায়ে আনুষ্ঠানিক এবং অনানুষ্ঠানিক মতবিনিময় করছে। তাদের সব বৈঠকে রোহিঙ্গা সংকটই মুখ্য আলোচ্য হচ্ছে। কাল প্রতিনিধি দলের সদস্যরা কক্সবাজার যাবেন। সেখানে নির্যাতিতের মুখেই তারা নির্যাতনের ঘটনাগুলো শোনবেন।

এদিকে চিলড্রেন অ্যান্ড আর্মড কনফ্লিক্ট বিষয়ক জাতিসংঘ মহাসচিবের বিশেষ প্রতিনিধি (স্পেশাল রিপ্রেজেন্টেটিভ) ভার্জিনিয়া গাম্বাও দ্রুততম সময়ে বাংলাদেশ সফরে আসছেন। আগামী সপ্তাহে তার সফর সংশ্লিষ্ট এডভান্স টিমের সদস্যরা ঢাকায় পৌঁছাবেন। বাংলাদেশে তারা কয়েকদিন কাটাবে। সফরকালে কক্সবাজারের রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন এবং রাখাইন সংঘাতে আঘাতপ্রাপ্ত শিশুদের সঙ্গেও কথা বলবে জাতিসংঘ টিম। এডভান্স টিমের রিপোর্ট পাওয়ার পরপরই মহাসচিবের বিশেষ প্রতিনিধি ঢাকা আসবেন। চলতি মাসের তৃতীয় সপ্তাহে ভার্জিনিয়া গাম্মার সফরটি হতে পারে বলে কূটনৈতিক সূত্রগুলো আভাস দিয়েছে।

উল্লেখ্য, ঢাকায় জাতিসংঘের আবাসিক সমন্বয়ক রবার্ট ওয়াটকিন্স বিদায়ের পরপরই দ্রুততম সময়ের মধ্যে তার উত্তরসূরি বাংলাদেশে এসে পৌঁছেছেন। ফিনল্যান্ডের নাগরিক মিজ মিয়া সেপ্পো ঢাকায় জাতিসংঘের নতুন দূত হিসেবে দায়িত্ব নিতে যাচ্ছেন। তিনি এরইমধ্যে পররাষ্ট্র দপ্তরের দায়িত্বশীল কর্মকর্তাদের সঙ্গে অনানুষ্ঠানিক বৈঠক করেছেন। পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলীর কাছে পরিচয়পত্র পেশের মধ্য দিয়ে তিনি আনুষ্ঠানিকভাবে কাজ শুরু করবেন।

থার্ড কমিটির বৈঠকে যা হবে: রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের পর এবার থার্ড কমিটিতে আলোচনা হবে আগামী ১৪-১৬ই নভেম্বর। এ আলোচনার উদ্যোক্তা ওআইসি। তবে এরইমধ্যে রাখাইন ইস্যুতে থার্ড কমিটিতে একটি রেজ্যুলেশনের প্রস্তাব করেছে মিশর। আগামী ১৪ই নভেম্বরের মধ্যে আগ্রহী দেশগুলোকে এই রেজ্যুলেশনে সমর্থন জানাতে হবে। এর ওপর হবে উন্মুক্ত ভোটাভুটি। ১৬ই নভেম্বর সেটি হওয়ার সমূহ সম্ভাবনা রয়েছে। বাংলাদেশ এরই মধ্যে দুনিয়াব্যাপী ওই রেজ্যুলেশনের পক্ষে জনমত গঠনের কাজে নেমেছে। গত রোববার ঢাকায় সিপিসি সম্মেলনের সাইড লাইনে রোহিঙ্গা বিষয়ক ব্রিফিংয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ বিষয়ে অংশগ্রহণকারী রাষ্ট্রগুলোর প্রতিনিধিদের প্রতি আনুষ্ঠানিক সমর্থন কামনা করেন। পেশাদার কূটনীতিকরাও এ নিয়ে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে দূতিয়ালি করছেন। মানবজমিন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ