প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

যে ৩ ক্রিকেটার বদলে দিয়েছেন ভারতীয় ক্রিকেট

স্পোর্টস ডেস্ক: আজ থেকে ৩৪ বছর আগে ভারতীয় ক্রিকেটে নতুন এক যুগের সূচনা হয়েছিল। কপিল দেবের নেতৃত্বে ১৯৮৩ সালে বিশ্বকাপ ক্রিকেটের শিরোপা বদলে দিয়েছিল ভারতীয় খেলাধুলার দিগন্ত। ক্রিকেট পরিণত হয়েছিল ভারতের সবচেয়ে জনপ্রিয় খেলায়। তবে যাঁর নেতৃত্বে ভারতে ক্রিকেট অন্য উচ্চতায় উঠেছিল, সেই কপিল ব্যক্তিগতভাবে ভারতীয় ক্রিকেটকে আজকের পর্যায়ে নিয়ে আসার কৃতিত্ব দিচ্ছেন তিন ক্রিকেটারকে। তাঁরা হলেন শচীন টেন্ডুলকার, বীরেন্দর শেবাগ আর মহেন্দ্র সিং ধোনি।
বেঙ্গালুরুতে ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস টাইমস আয়োজিত একটি গলফ টুর্নামেন্টে অতিথি হিসেবে উপস্থিত হয়ে কপিলের কণ্ঠে ঝরেছে তাঁর পরবর্তী প্রজন্মের বন্দনা। টেন্ডুলকার, শেবাগ ও ধোনিকে তিনি ভারতীয় ক্রিকেটের বদলে যাওয়ার কারিগরই মনে করেন, ‘এই তিন ক্রিকেটারকে দেখে নতুন প্রজন্ম মাঠে এসেছে। এটাই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। টেন্ডুলকার ২৪ বছর ধরে ভারতের হয়ে খেলেছে। তার রাজকীয় পারফরম্যান্স একাধিক প্রজন্মকে ক্রিকেট নিয়ে উদ্বুদ্ধ করেছে। শেবাগ ভারতীয় দলের খেলার ধরনটাই বদলে দিয়েছে।’
ধোনিকে একটু আলাদাভাবেই দেখতে চান কপিল। সেটা তাঁর জন্মস্থানের কারণেই, ‘টেন্ডুলকার মুম্বাইয়ের ছেলে, শেবাগ দিল্লির। দুজনেরই বড় শহরে, অধিক সুযোগ-সুবিধার মধ্যে বেড়ে ওঠা। কিন্তু ধোনি এসেছে রাঁচির মতো ছোট শহর থেকে। সে ছোট শহর থেকে এসে ভারতের সবচেয়ে সফল অধিনায়কে পরিণত হয়েছে। ভারতকে জিতিয়েছে একাধিক বৈশ্বিক প্রতিযোগিতা। ধোনিকে দেখে এখন প্রত্যেক ভারতীয় তরুণই স্বপ্নের বীজ বোনে। ছোট শহর থেকে উঠে এসেও যে বড় পরিসরে জায়গা করে নেওয়া যায়, ধোনি সেটিই করে দেখিয়েছে।’

এই তিন ক্রিকেটারের সঙ্গে কপিল উল্লেখ করেছেন আরেক সাবেক অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলীর নামও। তিনি মনে করেন, শেবাগের আক্রমণাত্মক ক্রিকেটের পাশাপাশি সৌরভের আগ্রাসী মনোভাবেরও অনেক প্রভাব আছে বিরাট কোহলির বর্তমান ভারতীয় দলে, ‘শেবাগ ছিল আক্রমণাত্মক ব্যাটসম্যান। সে যখনই মাঠে নেমেছে, প্রতিপক্ষকে গুঁড়িয়ে দিতে চেয়েছে। সে কোনো দিন ব্যক্তিগত অর্জনের জন্য খেলেনি। তার সঙ্গে সৌরভ গাঙ্গুলীর আক্রমণাত্মক মনোভাবও বর্তমান ভারতীয় দলের ওপর বড় প্রভাব রেখেছে।’ সূত্র: জি নিউজ, প্রথমআলো

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত