প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

পাক সাংবাদিক হামিদ মীরের বিরুদ্ধে অপহরণ ও খুনের অভিযোগ

মুফতি আবদুল্লাহ তামিম : শনিবার পাকিস্তানের সিনিয়র সাংবাদিক হামিদ মীরের বিরুদ্ধে আইএসআই এর উর্ধ্বতন কর্মকর্তা খালেদ খাজাকে অপহরণের অভিযোগে একটি মামলা দায়ের করা হয়। ডন সূত্রের মাধ্যমে জানা যায়, ইসলামাবাদ হাইকোর্টের রায়ের আলোকে এই মামলাটি নিবন্ধিত হয়েছে।

খালিদ খাজা, যাকে ২০১০ সালের মার্চ মাসে ইসলামাবাদের জি-১০/২ সেক্টরে তার বাড়ি থেকে অপহরণ করা হয়েছিলো। খালেদ খাজার স্ত্রী হামিদ মীরের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা করেন। মামলাটি ইসলামাবাদের রমনা থানায় নিবন্ধিত হয়েছে। যেখানে অভিযোগ করা হয়, হামিদ মীর ও উসমান পাঞ্জাবী তাদের হুলিগানদের সহায়তায় তার স্বামী খালিদ খাজাকে অপহরণ করেছে। পরে খালেদ খাজাকে উত্তর ওয়াজিরিস্তানে নিয়ে যাওয়া হয়। ২০১০ সালের ৩০ এপ্রিল তার বুলেটে ঝাঁঝরা হওয়া শরীর করমকোট এলাকায় পাওয়া যায়। পরে তার মরদেহ ইসলামাবাদে আনা হয়। কিন্তু ময়নাতদন্ত করা হয়নি বলে জানা যায়।

খালেদ খাজার স্ত্রীর আভিযোগ, পুলিশ আমার ছেলের করা মামলাটি রেকর্ড করেনি, তিনি দাবি করেন, তার মৃত স্বামী এবং হামিদ মীরের মাঝে লাল মসজিদ অভিযানের অবশ্যই যোগ-সূত্র রয়েছে। খালেদ খাজা লাল মসজিদ ঘটনায় সিনিয়র সাংবাদিক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন। একই কারণে হামিদ মীর ও উসমান পাঞ্জাবী খালেদ খাজাকে অপহরণ করে হত্যা করে।

সিনিয়র সাংবাদিক হামিদ মীরের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, তাকে ব্ল্যাকমেইল করার জন্য একটি রাজনৈতিক সংগঠন উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে। ডন, পাকিস্তান

সর্বাধিক পঠিত