প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

যে কারণে পারিবারিক বন্ধন আলগা হয়ে যাচ্ছে

ড. জিনাত হুদা : আমাদের সমাজ একটা খুব খারাপ সময়ের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। সমাজে মূল্যবোধের জায়গাগুলোতে বিরাট ধস নেমে যাচ্ছে। পারিবারিক বন্ধনগুলোও ক্রমান্বয়ে শিথিল হয়ে যাচ্ছে। আমরা একটা পরিবর্তনের ভেতর দিয়ে যাচ্ছি। আমরা প্রাশ্চাত্যের কিছু সংস্কৃতি আকড়ে ধরছি। প্রাশ্চাত্যের কিছু ভোগবাদী সংস্কৃতি, ভোগবাদী আচার-আচরণ আমাদের মধ্যে ঢুকে যাচ্ছে। এসব সংস্কৃতির কারণে আমাদের ধ্যান-ধারণাগুলো ধাক্কা খাচ্ছে। অর্থ্যাৎ প্রাশ্চাত্যের কোনটা ভাল, কোনটা মন্দ, কোনটা গ্রহণ করব আর কোনটা বর্জন করব সেটা ধরতে পারছি না। বিশেষত আকাশ সংস্কৃতির মাধ্যমে ইন্টারনেট, টুইটার, ফেসবুক, ইউটিউব, চ্যাটিংÑ এসবের ভিতর দিয়ে পরকীয়া, ব্যভিচার, অনৈতিক সম্পর্ক, বিকৃত রূচিবোধ সমাজে ভীষণভাবে প্রবেশ করছে। আমরা একসময় ভাবতাম, এগুলো দেখা যায় সমাজের উচ্চ শ্রেণির লোকদের বা বিশেষ শ্রেণির দ্বারা হয়ে থাকে। কিন্তু বর্তমানে দেখা যাচ্ছে এসব ঘটনাগুলো প্রান্তিক, মধ্যবিত্ত, নিম্নমধ্যবিত্ত পরিবারের মানুষেরাও জড়িয়ে পরছে। আকাশ সংস্কৃতি যেটা করছে সেটা হলো কেন্দ্র থেকে প্রান্ত, উচ্চবিত্ত থেকে নিম্নবিত্ত সব জায়গায় অপসংস্কৃতিগুলো ছড়িয়ে দিচ্ছে। নিম্নবিত্ত পরিবারে যে সব হত্যাকা- বা পরকীয়ার ঘটনা ঘটে সেগুলো দেখা যায় যে বেশিরভাগ মেয়েরাই বাল্যবিয়ের শিকার। তাদের আশা-আকাক্সক্ষা পূরণের আগেই বিয়ে হয়ে যায়, সন্তান জন্ম হয়ে থাকে। এখন দেখা যাচ্ছে ওই পরিবারের মেয়েটাই আকাশ সংস্কৃতির মাধ্যমে চ্যাটিং করে, ফেসবুক ব্যবহার করে কারও সঙ্গে কথা বলে সময় কাটায়। এবং এক পর্যায়ে অনৈতিক সম্পর্ক গড়ে তোলে। মানুষের ভেতরে আদিমতম যে আকাক্সক্ষাগুলো রয়েছে সেগুলোকে উস্কে দেওয়া হচ্ছে। আগে এগুলো পুরুষতান্ত্রিক সমাজে ছেলেরা করেছে, এখন এই মুক্ত সংস্কৃতি, অবাধ ইন্টারনেট, মুক্তবাজার অর্থনীতি সব কিছুকে মুক্ত করতে করতে আমরা এমন একটা অবস্থায় এসে গেছি যেখান থেকে বের হয়ে আসাটা খুব কঠিন হয়ে পড়ছে।
অতীতে মায়েদের একটা জায়গা ছিল সেটাও এখন ভেঙে যাচ্ছে। ফলে পারিবারিক বন্ধনগুলো ভেঙে যাচ্ছে। আমরা দেখেছি আগে মায়েরা সন্তানদের রক্ষার জন্য নিজের জীবন দিয়ে দিতেন, এখন নিজের আদিমতম প্রেষণাকে পূরণের জন্য নিজের সন্তানকে বলির পাঠা হিসেবে ব্যবহার করছেন। এই যে সামাজিক মূল্যবোধের অবক্ষয়, পরিবারের ভেতরে যে একটা টানা-পোড়েন, অস্থিরতা চলছে এ সমস্তই হচ্ছে সংস্কৃতির অনুপ্রবেশের কারণে।
এসব সমস্যা সমাধানে আমাদের পারিবারিক বন্ধনকে আরও সুদৃঢ় করতে হবে। আকাশ সংস্কৃতির খারাপ দিকগুলো পরিহার করতে হবে। পরিবারের সদস্যদের একে অপরের ওপর বিশ্বাস, ভালবাসা আরও বাড়াতে হবে।
পরিচিতি : অধ্যাপক, সমাজবিজ্ঞান বিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
মতামত গ্রহণ : সাগর গনি
সম্পাদনা : আশিক রহমান

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত