প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন সাবেক রাষ্ট্রপতি আবদুর রহমান বিশ্বাস

সঞ্চিতা আক্তার : শনিবার সন্ধ্যায় রাজধানীর বনানী কবরস্থানে তার দাফন সম্পন্ন হয়। এর আগে বেলা ১১টায় বরিশাল জেলা স্কুলে আবদুর রহমান বিশ্বাসের প্রথম নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। সেখান থেকে আনা হয় রাজধানীর নয়া পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে। বেলা ২টায় সেখানে দ্বিতীয়, হাইকোর্টে বিকাল ৩টায় এবং গুলশান আজাদ মসজিদে শেষ তার জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে দ্বিতীয় জানাজার আগে দলের পক্ষ থেকে তার প্রতি শেষ শ্রদ্ধা জানান হয়। এতে অংশ নেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, নজরুল ইসলাম খান, মির্জা আব্বাস, আবদুল্লাহ আল নোমান, রুহুল কবির রিজভী, আব্দুস সালাম, সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, খায়রুল কবীর খোকন, হাবিব উন নবী খান সোহেল, অ্যাডভোকেট মাসুদ আহমেদ তালুকদারসহ বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণে আবদুর রহমান বিশ্বাসের তৃতীয় জানাজায় আপিল বিভাগের বিচারপতি মীর্জা হুসেইন হায়দার, হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতিগণ, অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম, সরকারি আইন কর্মকর্তাগণ, সুপ্রিম কোর্ট বারের সভাপতি জয়নাল আবেদীন, সম্পাদক ব্যারিস্টার এ এম মাহবুব উদ্দিন খোকন, সাবেক স্পিকার ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, বারের সাবেক সভাপতি মাহবুব হোসেন, ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন, সাবেক সম্পাদক স ম রেজাউল করিম ও ব্যারিস্টার বদরুদ্দোজা বাদলসহ বিপুলসংখ্যক আইনজীবী অংশগ্রহণ করেন। সুপ্রিম কোর্টে জানাজা শেষে আবদুর রহমান বিশ্বাসের মরদেহ নিয়ে যাওয়া হয় জাতীয় সংসদের দক্ষিণ প্লাজায়। সেখানে আরেক দফা জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

শুক্রবার রাত ৮টা ৪০ মিনিটে রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে আবদুর রহমান বিশ্বাস ইন্তেকাল করেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৯১ বছর। ১৯৯১ সালে আবদুর রহমান বিশ্বাস রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হন। ১৯৯৬ সালে রাষ্ট্রপতি হিসেবে তাঁর মেয়াদ শেষ হয়। রাজনীতির পাশাপাশি তিনি আইন পেশায়ও যুক্ত ছিলেন। সূত্র : ইত্তেফাক

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ