প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কাশ্মীরে বিজেপির যুব নেতাকে গলা কেটে খুন করল জঙ্গিরা

অরিজিৎ দাস চৌধুরি, কলকাতা থেকে : কাশ্মীরে এবার জঙ্গিদের নিশানায় বিজেপির নেতা-কর্মীরা। দক্ষিণ কাশ্মীরের সোপিয়ানে বিজেপির যুবনেতা গওহর আহমেদ ভাটের গলাকাটা দেহ উদ্ধার করল পুলিশ। শাসকদলের অভিযোগ, তাঁকে অপহরণ করে খুন করেছে জঙ্গিরাই। প্রাথমিক তদন্তে ঘটনায় জঙ্গি-যোগ রয়েছে বলে মনে করছে পুলিশও। এদিকে দলের যুবনেতার মৃত্যুতে তাঁর পরিবারকে সমবেদনা জানিয়েছেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ। টুইটারে তিনি লিখেছেন, নিজেদের জন্য ভাল ভবিষ্যত বেছে নেওয়ার অধিকার থেকে কাশ্মীরের যুবকদের বঞ্চিত করতে পারবে না জঙ্গিরা। ‘শহিদ’ গওহর আহমেদ ভাটের পরিবারের পাশে আছে বিজেপি।

সোপিয়ান জেলার বনগাম এলাকায় থাকতেন বছর তিরিশের এই বিজেপি নেতা। ওই জেলার বিজেপি যুব মোর্চার সভাপতি ছিলেন তিনি। বিজেপি সূত্রে খবর, সম্প্রতি শ্রীনগরে দলের যুব কনভেনশন আয়োজন করে দলীয় নেতৃত্বের প্রশংসা কুড়িয়েছিলেন গওহর আহমেদ ভাট। বিজেপি নেতা আলতাফ ঠাকুরের অভিযোগ, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ছ’টা নাগাদ বাড়ির খুব কাছ থেকে গওহরকে অপহরণ করে জঙ্গিরা। রাতে কিল্লোরা এলাকা থেকে তাঁর গলাকাটা দেহ উদ্ধার হয়। স্থানীয় এক পুলিশ আধিকারিক জানিয়েছেন, একটি মাঠ থেকে ওই বিজেপি নেতার দেহ উদ্ধার হয়। ঠিক কী ঘটেছিল, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তবে সাধারণত জঙ্গিরাই এইভাবে খুন করে। এদিকে, দলের যুবনেতার মৃত্যুতে টুইট করে পরিবারকে সমবেদনা জানিয়েছেন বিজেপি সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ। টুইটে তিনি লিখেছেন, ‘দলের যুবমোর্চার সভাপতি গওহর আহমেদ ভাটের খুনের ঘটনা আমি ব্যথিত। তাঁর পরিবারকে গভীর সমাবেদনা জানাই। নিজেদের জন্য ভাল ভবিষ্যত তৈরির অধিকার থেকে কাশ্মীরি যুবকদের বঞ্চিত করতে পারবে না জঙ্গিরা। শহিদ গওহর আহমেদ ভাটের পরিবারের পাশে আছে বিজেপি।’

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি কাশ্মীরের শান্তি ফেরাতে আলোচনা প্রক্রিয়া শুরু করেছে কেন্দ্র। হুরিয়ত-সহ সবপক্ষের সঙ্গে আলোচনার জন্য প্রাক্তন গোয়েন্দা প্রধান দীনেশ্বর শর্মাকে নিয়োগ করা হয়েছে। কিন্তু, আলোচনা প্রক্রিয়া শুরু হতেই উপত্যকায় জঙ্গিদের হামলার মুখে পড়ছেন রাজনৈতিক দলের নেতা-কর্মীরা। গত মাসেই পিপপলস ডেমোক্র্যাটিক পার্টির কর্মী ও প্রাক্তন সরপঞ্চ মহম্মদ রামজান শেখকে খুন করে জঙ্গিরা। পরিবার লোকেরা প্রতিরোধ করতে গেলে, একজন জঙ্গিরও মৃত্যু হয়। এরই মধ্যে বিজপি যুবনেতাকে খুনের ঘটনায় শান্তি প্রক্রিয়ায় এগিয়ে নিয়ে যাওয়াই এখন চ্যালেঞ্জ বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।