প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

৭ মার্চের ভাষণ বিশ্বপ্রামাণ্য ঐতিহ্য : আমাদের মহান অর্জন

ফেরদৌসী প্রিয়ভাষিণী : বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ বিশ্বপ্রামাণ্য দলিল হিসেবে ইউনেস্কো স্বীকৃতি দিয়েছে, এটা আমাদের জন্য একটা মহান অর্জন। এই অর্জন অত্যন্ত গর্বের, এটা ভাবা যায় না। এই স্বীকৃতির মাধ্যমে সারা বিশ্বে বাঙালির সঠিক মুল্যায়ন হয়েছে। বঙ্গবন্ধুর দেওয়া ৭ মার্চের ভাষণ আব্রাহাম লিঙ্কণকেও ছাড়িয়ে যেতে পারে। এই পৃথিবীতে যত রাষ্ট্রনায়ক তাদের জাতির উদ্দেশ্য, দেশের মুক্তিকামী মানুষের উদ্দেশ্যে ভাষণ দিয়েছেন তার মধ্যে বঙ্গবন্ধুর এই মহান ভাষণ অন্যতম। এক সময় বাংলাদেশ ক্ষুদ্র রাষ্ট্র ছিল এখন আমরা আস্তে আস্তে বিস্মৃত হতে চলেছি এসব অর্জনের মধ্য দিয়ে। বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের মহান ভাষণ প্রত্যেকটি পাঠ্য বইয়ে আসা উচিত। এই অর্জনকে আমরা আন্তর্জাতিক গর্ব বলেও চিন্তা করতে পারি। প্রতিদিন, প্রতিমুহূর্তে শুধু দুঃখের খবর, হাহাকার শুনতে পাই, পত্র-পত্রিকায় শুধু আহাজারি, যন্ত্রণার শেষ নেই এরই মধ্যে ইউনেস্কোর এই স্বীকৃতি একটি মহা আনন্দ বয়ে নিয়ে আসলো। এত বছর পরে হলেও যে বাঙালির স্বীকৃতি মিলল এটা বিরাট অর্জন। বঙ্গবন্ধুর স্বীকৃতি মানেইতো আরেকবার বাংলাদেশের স্বাধীনতার স্বীকৃতি। বঙ্গবন্ধুর এই ভাষণকে আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি দেওয়ার মধ্য দিয়ে আমাদের স্বাধীনতার পুনরায় স্বীকৃতি হয়েছে বলা যায়। এটা বাঙালির শ্রেষ্ঠ অর্জন বলে মনে করি। আমাদের দেশ, আমাদের নেতা, আমাদের স্বাধীনতা যাই বলা হোক না কেন, আমরা বঙ্গবন্ধুকেই বুঝি। বাংলাদেশের অপর নামই বঙ্গবন্ধু। এই কথাটা আমাদের প্রত্যেক বাঙালিকে স্বীকার করতে হবে। এই অর্জন আমাদের জন্য অত্যন্ত আনন্দের, গর্বের, বিশ্বে মাথা উচু করে দাঁড়াবোর মতো একটা অর্জন। এই অর্জন বঙ্গবন্ধুর প্রাপ্য ছিল, বাঙালির প্রাপ্য ছিল। আমরা ইউনেস্কোকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করি এই স্বীকৃতির জন্য।

পরিচিতি : ভাস্কর ও মুক্তিযোদ্ধা
মতামত গ্রহণ : সাগর গনি
সম্পাদনা : মোহাম্মদ আবদুল অদুদ

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ