প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

পূর্ব শক্রুতার জেরধরে লেবুবাহী ট্রাকে আগুন, থানায় অভিযোগ

এম.তাজুল ইসলাম মানিক, বোয়ালখালী : চট্টগ্রামের বোয়ালখালীতে পূর্ব শক্রুতার জেরধরে লেবু বহনকারী ট্রাক আগুনে জালিয়ে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা।

গত ২৭ অক্টোবর রাত সাড়ে ১১টার সময় বোয়ালখালীর কড়লডেঙ্গা মাজার গেইট এলাকা থেকে লেবু নিয়ে নগরীর রিয়াজউদ্দিন বাজার যাওয়ার পথে চান্দগাঁও থানাধীন শরাফত উল্লাহ পেট্টোল পাম্পের সামনে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় চান্দগাঁও থানায় ৫জনের নাম উল্লেখ করে ২নভেম্বর অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

থানায় দায়েরকৃত অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, প্রতিদিন বোয়ালখালী উপজেলার কড়লডেঙ্গা পাগাড়ে উৎপাদিত লেবু মাজার গেইট এলাকা হতে মিনি ট্রাকে করে নগরীর পাইকারী বাজার রিয়াজউদ্দিন বাজারে নেয়া হয়।

প্রতিদিনের ধারাবাহিকতায় গত ২৭ অক্টোবর রাত সাড়ে ১১টার সময় চট্টমেট্টো-ড-১১-২৫১৩ নম্বরের ট্রাকে করে কড়লডেঙ্গা এলাকা থেকে লেবু নিয়ে রিয়াজউদ্দিন বাজার যাওয়ার পথে নগরীর চান্দগাও থানাধীন শরাফত উল্লাহ পেট্টোল পাম্প এলাকায় পৌছলে ৪/৫জন লোক গাড়ীর গতিরোধ করে ট্রাকে আগুন লাগিয়ে দেয়।

এতে ট্রাকের প্রায় অংশ পুড়ে যায়। এসময় চালক-হেলপারের চিৎকারে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এলে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়।

পূর্ব শক্রুতার জেলধরে এঘটনা ঘটায় উল্লেখ করে গাড়ীর মালিক মাহামুদ করিম বাদী হয়ে চান্দগাঁও থানায় গত ২ নভেম্বর একটি অভিযোগ (নং-৭৪/১৭) দায়ের করেন।

অভিযোগে কড়লডেঙ্গা এলাকার মনতাজ মিয়ার ছেলে আদিলুর রহমান সুজন (৩৫), সোনা মিয়া তালুকদারের ছেলে মাহাবুল আলম তালুকদার (২৮), নাছের উদ্দিনের ছেলে ইফতেখারুল আলম হিরু (২৮), আশেক মোহাম্মদ সিদ্দিকী প্রকাশ-জনির (২৮), নুরুল হকের ছেলে হামিদুল হককে আসামী করা হয়।

অভিযোগ পাওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করে চান্দগাঁও থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো.আব্দুল কাদের বলেন,পুড়িয়ে দেওয়া ট্রাকটি এখনো ঘটনাস্থলে রয়েছে। বিষয়টি গুরুত্বের সাথে খতিয়ে দেখা হচ্ছে এবং প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

অভিযোগকারী ট্রাকের মালিক মাহামুদ করিম বলেন, কড়লডেঙ্গা পাহাড়ে অবস্থিত মেধসমুনি আশ্রমে কয়েকদিন আগে দুজন ছেলে মেয়ে বেড়াতে যায়।

এসময় স্থানীয় কয়েকজন যুবক মিলে বেড়াতে যাওয়া ছেলেমেয়েদের কাছ থেকে মোবাইল এবং টাকা-পয়সা নিয়ে নেয়। একপর্যায়ে বেড়াতে যাওয়া ছেলেমেয়েদের সিএনজি করে তুলে নিয়ে যাওয়ার পথে বাঁধা দেয় মোহাম্মদ মাহামুদ করিম।

তিনি স্থানীয় বখাটেদের হাত থেকে ছেলেমেয়ে ২জনকে উদ্ধার করে। খবর পেয়ে বোয়ালখালী থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এবং স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান হামিদুল হক মান্নান বিষয়টি সমাধান করে দিয়ে বেড়াতে যাওয়া ছেলেমেয়েদের তাদের অভিভাবক ডেকে তাদের হাতে তুলে দেয়।

এঘটনায় ক্ষিপ্ত হয় বিবাদী আদিলুর রহমান সুজনসহ তার সাঙ্গপাঙ্গরা।

এর পর থেকে মাহামুদ কমিমকে দেখে নেওয়ার হুমকি দেয় এবং তাদের মালিকানাধীন চট্টমেট্টো-ড-১১-২৫১৩, চট্টমেট্টো-ন-১১-৩৪৮১ এবং চট্টমেট্টো-অ-১১-০০৭০ রেজিস্ট্রেশনযুক্ত ৩টি মিনি ট্রাক আগুনে পুড়ে দেবে বলেও শাসায় এবং পরে লেবু নিয়ে যাওয়ার পথে আগুনে পুড়ে দেয় ট্রাকটি।

এর আগেও দেখে নেওয়ার এবং ট্রাক পুড়ে দেওয়ার হুমকি দেওয়ায় বোয়ালখালী থানায় উপরোক্ত ব্যক্তিদের নামে লিখিত অভিযোগ (নং-৭৬৯) দেওয়া হয় বলে জানান ট্রাকের মালিক মাহামুদ করিম ও চালক জামাল উদ্দিন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ