প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

টেলিফোন মতামত
কোন পথে তথ্যপ্রযুক্তি খাত ?

অনেক সম্ভাবনাময় খাত 

মোস্তাফা জব্বার  :  ২০০৮ সালে ডিজিটাল বাংলাদেশের কথা বলেছিল বাংলাদেশ। প্রযুক্তিনির্ভর বাংলাদেশ গড়ার কথা শুনেছিল দেশের মানুষ। উন্নত বিশ্বে প্রযুক্তির উৎকর্ষতা ছিল, কিন্তু তখনও উল্লেখযোগ্য ছিল না বাংলাদেশে। তখনকার চেয়ে এখনকার পরিস্থিতি ভিন্ন। দ্রুতই তথ্যপ্রযুক্তিতে আমরা এগিয়ে যাচ্ছি। প্রযুক্তির ব্যবহার বাড়ছে প্রতিনিয়তই। বর্তমান সরকার ২০০৯ সালে নির্বাচনে জয়ী হওয়ার পর এই খাতকে অগ্রাধিকার দিয়েছে। যাতে প্রযুক্তিতে দ্রুত এগিয়ে যেতে পারে দেশ। বিষয়টি নিয়ে সরকার প্রচুর কাজ করছে। প্রযুক্তি খাত বিকশিত হওয়ার জন্য যা যা করা দরকার, যেসব উদ্যোগ নেওয়া দরকার, যতটা শ্রম দেওয়া দরকার সরকার তা দিচ্ছে। তার ফলেই তথ্যপ্রযুক্তিতে অনেক ভালো করছে বাংলাদেশ। এই খাতকে অধিক গুরুত্ব দেওয়ার ফলে পুরো দেশ তার সুবিধা পাচ্ছে।

যে কোনও কাজ করতে গেলে সমস্যাকে মোকাবেলা করতে হয়। সংকট দেখা দেয়। সংকট ও সম্ভাবনা উভয়ই থাকে যেকোনো কাজে। সংকটটি সম্ভাবনার দিকে হাটলে কোনো সমস্যাই আর সমস্যা হিসেবে ধরা দিতে পারে না। জয়ী হয়, যার বিজয়ী হওয়ার পণ থাকে। বাংলাদেশেও তথ্যপ্রযুক্তিতে বিজয়ী হবে। দ্রুত গতিতে এগিয়ে যাবে। কারণ এটি অনেক সম্ভাবনাময় খাত।

পরিচিতি : প্রযুক্তিবিদ

 

 

 

তথ্যপ্রযুক্তি খাতে বিনিয়োগের এখনই সময়
কাজী রাশেদুল মজিদ : তথ্যপ্রযুক্তি বিপুল সম্ভাবনাময় একটি খাত। তথ্যপ্রযুক্তিতে অপার সম্ভাবনাময় দেশগুলোর অন্যতম হচ্ছে বাংলাদেশ। দ্রুতই আমরা প্রযুক্তিকে সঙ্গে নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছি। প্রযুক্তির অনেক সুবিধা মানুষ ভোগ করছে। এই খাতে নতুন নতুন বিনিয়োগ হচ্ছে। প্রযুক্তিতে আগামী ১০ বছরে বিনিয়োগের ভালো সুযোগ রয়েছে বাংলাদেশে। বিনিয়োগের এখনই সঠিক সময়। কেউ যদি কোনো ব্যবসায় বিনিয়োগ করতে চায়, তারা তথ্যপ্রযুক্তি খাতে বিনিয়োগ করতে পারেন। কারণ সব ব্যবসার জন্যই ক্রেতা একটি গুরুত্ব বিষয়। তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক প্রচুর ক্রেতা তৈরি হচ্ছে এখন বাংলাদেশে। যা প্রতি বছর গুণিতক হারে বৃদ্ধি পাচ্ছেÑ সেটি ৫ থেকে ১০ গুণ পর্যন্ত। প্রযুক্তির বাজার প্রস্তুত তৈরি আছে, যা কিনা অন্যান্য দেশে তৈরি করে নিতে হয়। এখানকার মানুষের হাতে মুঠোফোন, ইন্টারনেটও খুব দ্রুত গতিতে ছড়িয়ে পড়ছে। পণ্যের মান ভালো হলে বিনিয়োগ করে ক্ষতিগ্রস্ত হবেন না কেউ। এখন যদি কেউ তথ্যপ্রযুক্তির এই বাজার দখল করতে পারেন, তিনিই বাণিজ্যিকভাবে লাভবান হবেন।

সব ব্যবসায়ই সমস্যা থাকে, সংকট থাকে। এই ব্যবসায়ও রয়েছে। অনেকে বিদেশি কোম্পানিগুলোকে বিশ্বাস করে, তাদেরকে প্রমোট করে, তাদের সফটওয়ার কেনার জন্য বিনিয়োগ করছে, অথচ দেশী প্রচুর কোম্পানি রয়েছে যারা ভালো কাজ করছে। তাদেরকে তারা অগ্রাধিকার দিচ্ছে না। যারা এই খাতে বিনিয়োগ করেন তাদেরকে এই চ্যালেঞ্জগুলো নিতে হচ্ছে, অনেক পরিশ্রম করতে হচ্ছে এই চ্যালেঞ্জগুলো নেওয়ার জন্য।

পরিচিতি : ম্যানেজিং ডিরেক্টর, রেইজ আইটি সলিউশন লি.

মতামত গ্রহণ : আশিক রহমান

সম্পাদনা : জব্বার হোসেন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত