শিরোনাম

প্রকাশিত : ২৬ মে, ২০২২, ০৫:৩১ বিকাল
আপডেট : ২৬ মে, ২০২২, ০৫:৩১ বিকাল

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

নারী সমস্যা নিয়ে কাজ করলেই মিলবে ভোট

কুসিক নির্বাচন

এম এম লিংকন, শাহাজাদা এমরান: [২] বেশ দূর থেকে বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে কুমিল্লা নগর ভবনে আসতে হয় নারীদের। এই সব এলাকায় নগর ভবনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও জনপ্রতিনিধিরা যান না। তাই ৭, ৮ ও ৯ সংরক্ষিত ওয়ার্ডে নারী সমস্যা নিয়ে যে সব প্রার্থী কাজ করবে তাদের মিলবে ভোট।

[৩] কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের দক্ষিণ এলাকার ছড়ানো ছিটানো নয়টি সাধারণ ওয়ার্ড নিয়ে সংরক্ষিত ওয়ার্ড ৭, ৮ ও ৯। এখানে কুমিল্লা রপ্তানি প্রক্রিয়াকরণ এলাকা (ইপিজেড), ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক, কোটবাড়ির পর্যটন এলাকা, বাংলাদেশ পল্লী উন্নয়ন একাডেমি (বার্ড), অসংখ্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান রয়েছে। সিটি করপোরেশনের একটি ভবন রয়েছে ওই এলাকায়। 

[৪] সংরক্ষিত ওয়ার্ড ৭ (১৯, ২০ ও ২১ নম্বর ওয়ার্ড) এখানে ইপিজেডের ৩৫ হাজার শ্রমিক আছেন। এর মধ্যে ৭০ শতাংশ নারী। নারীদের মেসে বিভিন্ন সময়ে ঝামেলা হয়। এ ওয়ার্ডে তিনজন প্রার্থী হয়েছেন। প্রার্থীদের দেওয়া হলফনামা মোতাবেক উম্মে সালমা লিজা এমবিএ, তাহমিনা আক্তার লিন্ডা ইংল্যান্ডে ফার্মাসিতে মাস্টার্স করেছেন ও নাসরিন আক্তার বিএ পাস। এ ওয়ার্ডের ভোটার সংরক্ষিত ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর নাজনীন কাজল বলেন, ‘শিক্ষিত ও এলাকার জন্য কাজ করবেন, এমন প্রার্থীকে ভোট দেবো। 

[৫] সংরক্ষিত ওয়ার্ড ৮ (২২, ২৩ ও ২৪ নম্বর ওয়ার্ড) এখানে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বেশি। পর্যটন এলাকাও। এই ওয়ার্ডে চার প্রার্থীর মধ্যে খোদেজা বেগম, আমেনা বেগম ও ফারহানা পারভীন অষ্টম শ্রেণি, মোসা. রোকসানা হক এসএসসি পাস। এ ওয়াডের ভোটার রোকেয়া বলেন, বাল্যবিবাহ, বিবাহবিচ্ছেদের বিরুদ্ধে যে কাজ করবেন, তাকে ভোট দেব। শিক্ষিত কাউন্সিলর হলে এলাকার মানুষ আরও বেশি সেবা পাবেন। আরেক ভোটার বলেন, শিক্ষিত কাউন্সিলরকে ভোট দিলে এখানকার নারীদের যৌন হয়রানি, উত্ত্যক্ত রোধে তিনি কাজ করবেন।

[৬] সংরক্ষিত ওয়ার্ড ৯ (২৫, ২৬ ও ২৭ নম্বর ওয়ার্ড) এ বিবাহবিচ্ছেদও আছে। হলফনামা মোতাবেক এ ওয়ার্ডের প্রার্থী রুবি আক্তার ও লাকী বেগম অষ্টম শ্রেণি, সেলিনা আক্তার ও শাহীন আক্তার এইচএসসি পাস। এই এলাকার কয়েকজন নারী ভোটার বলেন, শিক্ষাগত যোগ্যতা যার বেশি এবং নারীদের বিভিন্ন সমস্যায় এগিয়ে আসবে তাকে ভোট দেবো।

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়