শিরোনাম
◈ লঞ্চের ভাড়া পুনর্নির্ধারণে বৈঠক আজ ◈ জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে জাতীয় পার্টির দুইদিনের কর্মসূচি ◈ সদরঘাটে দুই লঞ্চের চাপায় পড়ে ট্রলারযাত্রী নিহত ◈ বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন নেছা মুজিবের ৯২তম জন্মবার্ষিকী আজ ◈ রাজধানীর শাহবাগে আন্দোলনকারীদের ওপর পুলিশের হামলা, আহত ২০ (ভিডিও) ◈ রাজধানীতে পুলিশের গাড়ি ভাঙচুরের মামলায় জামায়াতের ৬ কর্মী গ্রেপ্তার ◈ হজে গিয়ে ভিক্ষা: অবশেষে জামিন পেলেন মতিয়ার ◈ মাঝিপাড়া হিন্দুপল্লীতে অগ্নিসংযোগের ঘটনায় ৫১ আসামি কারাগারে ◈ পরিবারের ৪ জনই ভুয়া চিকিৎসক, করেন জটিল রোগের চিকিৎসা ◈ চলন্ত বাসে ডাকাতি-ধর্ষণ, মূল পরিকল্পনাকারীসহ গ্রেপ্তার ১০

প্রকাশিত : ২৭ জুন, ২০২২, ০৫:৫৭ বিকাল
আপডেট : ২৭ জুন, ২০২২, ০৫:৫৭ বিকাল

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

ছেলে আদিত্যের হাত ধরে বাবার ২৩ বছরের আক্ষেপ ঘুচলো

আদিত্যে

ঝুমুরী বিশ্বাস: রঞ্জি ট্রফির ফাইনালে আরও একবার ফেবারিট ছিল মুম্বাই। তাদেরকে হতাশায় ডুবিয়ে ইতিহাসে প্রথমবারের মতো মর্যাদার এই টুর্নামেন্টের শিরোপা ঘরে তুলেছে মধ্য প্রদেশ। ব্যাঙ্গালুরতে রোববার (২৬ জুন) শেষ হওয়া ফাইনালে রঞ্জির ৪১ বারের চ্যাম্পিয়ন মুম্বাইকে ৪ উইকেটে হারিয়েছে আদিত্য শ্রিভাস্তাবের দল।

নিজের বাবার ২৩ বছরের একটি আক্ষেপও মিটিয়ে দিয়েছেন মধ্য প্রদেশের অধিনায়ক। ১৯৯৫ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত মধ্য প্রদেশের হয়ে খেলেছেন আদিত্যের বাবা চন্দ্রকান্ত পন্ডিত, করেছেন অধিনায়কত্বও। সেই চন্দ্রকান্তই এখন আবার মধ্য প্রদেশের কোচ।

১৯৯৯ সালে চন্দ্রকান্তের নেতৃত্বে ফাইনালে উঠেছিল মধ্য প্রদেশ। এবারের মতো সেবারও ব্যাঙ্গালুরুর চিন্নাস্বামী স্টেডিয়ামে শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে মাঠে নামে তারা। কিন্তু সেই ফাইনালে কর্ণাটককে হারাতে পারেনি চন্দ্রকান্তের মধ্য প্রদেশ। সেদিন থেকে ২৩ বছর পর এসে তা করে দেখালো আদিত্যের মধ্য প্রদেশ। জাগোনিউজ ২৪

ছেলের হাত দিয়েই মধ্য প্রদেশকে চ্যাম্পিয়ন করার আক্ষেপ মিটেছে কোচ বাবা চন্দ্রকান্তের। ফাইনাল শেষে সেই ২৩ বছর আগের স্মৃতিতে ফিরে যান তিনি। সেবার না পারলেও এবার আদিত্যের হাত দিয়ে আশায় আক্ষেপ মেটার আনন্দ চন্দ্রকান্তের কণ্ঠে।

বিসিসিআইয়ের ভিডিওতে তিনি বলেছেন, এটি আমার জন্য আবেগঘন মুহূর্ত। এখন ২৩ বছর আগের কথা মনে পড়ছে। এই মাঠেই মধ্যপ্রদেশের অধিনায়ক হিসেবে ফাইনালে হারতে হয়েছিল। এবার এই মাঠেই রঞ্জিতে প্রথমবার চ্যাম্পিয়ন হলাম। অনেকে বলে বাবা যেটা করতে পারেননি, আজ ছেলে আদিত্য সেটা করে দেখালো। সম্পাদনা: এল আর বাদল।

  • সর্বশেষ