শিরোনাম
◈ আমি আওয়ামী লীগে ছিলাম, আছি ও থাকব: সোহেল তাজ ◈ রুশ তেল পরিশোধনের পর যুক্তরাষ্ট্রে রফতানি করছে ভারত, ক্ষুব্ধ যুক্তরাষ্ট্র ◈ মুক্তিযুদ্ধের পরাজিত অপশক্তির ষড়যন্ত্র থেমে থাকেনি: জয় ◈ চকবাজারে পলিথিন কারখানায় আগুন নিয়ন্ত্রণে ◈ টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা ◈ মডার্না-অ্যাস্ট্রাজেনেকা গ্রহীতারা দ্বিতীয় ডোজে পাবেন ফাইজার ◈ শ্বাসরোধ করেই সেই শিক্ষিকার মৃত্যু ◈ বাংলাদেশকে নিয়ে দেশে-বিদেশে ষড়যন্ত্র চলছে : পররাষ্ট্রমন্ত্রী ◈ বঙ্গবন্ধু হত্যার প্রধান সুবিধাভোগী জিয়া: তথ্যমন্ত্রী ◈ জাতির পিতার স্বপ্ন পূরণ করছেন শেখ হাসিনা: ওবায়দুল কাদের

প্রকাশিত : ২৮ মে, ২০২২, ১২:৩৯ দুপুর
আপডেট : ২৮ মে, ২০২২, ১২:৩৯ দুপুর

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

আমতলী সরকারী কলেজে অধ্যক্ষ নেই, শিক্ষক সংঙ্কটে পাঠদান ব্যহত

আমতলী সরকারী কলেজ

জিয়া উদ্দিন সিদ্দিকী, আমতলী: বরগুনা জেলার আমতলী সরকারী কলেজে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ দিয়েই চলছে কার্যক্রম। শিক্ষক সংঙ্কট থাকায় কলেজের পাঠদান ব্যহত হচ্ছে। ২২ বিষয়ের মধ্যে ৮ বিষয়ে শিক্ষক নেই। কলেজে অধ্যক্ষ, শিক্ষক, কর্মচারী ও অফিস সহায়কসহ ৪৪ জনের পদ থাকলেও কর্মরত আছেন মাত্র ২২ জন। অধ্যক্ষ, শিক্ষক ও কর্মচারী  চেয়ে সংশ্লিষ্ট দফতরে আবেদন করেও প্রতিকার পাচ্ছেন না কলেজ কর্তৃপক্ষ। দ্রুত অধ্যক্ষ, শিক্ষক ও কর্মচারী নিয়োগের দাবি জানিয়েছেন শিক্ষার্থীরা।

জানাগেছে, ১৯৬৯ সালে উপজেলার প্রাণকেন্দ্রে এ কলেজটি প্রতিষ্ঠা করেন স্থানীয় গন্যমান্যরা। মানসম্মত পাঠদান দেয়ার কারনে ২০১৬ সালের ৭ এপ্রিল কলেজটিকে জাতীয়করণ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। জাতীয়করণ হওয়ার পরপরই আর কোনো নতুন শিক্ষক নিয়োগ দেয়া হয়নি। বিএম, মানবিক, বিজ্ঞান ও বানিজ্য বিভাগে কলেজে স্নাতক, একাদ্বশ ও দ্বাদশ শ্রেণীতে দুই হাজার ৭শ’ ৩৬ জন শিক্ষার্থী রয়েছে। কলেজের ২২টি বিষয়ের পাঠদান হয়। জাতীয়করণের পর ৮ শিক্ষক, কর্মচারী অবসরে যান। 

শিক্ষার্থী হাবিবা সুলতান রুম্মান বলেন, বাংলা ও তথ্য প্রযুক্তি বিষয়ের শিক্ষক নেই। এতে আমরা পাঠদান থেকে বঞ্চিত হচ্ছি। এছারা বা নিজ্য বিভাগের অনেক শিক্ষকই নেই। 

ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মোঃ হোসেন আহমেদ বলেন, গত ছয় বছর ধরে শিক্ষক অবসরে গেলেও শিক্ষা মন্ত্রনালয় শিক্ষক নিয়োগ দিচ্ছে না। সংশ্লিষ্ট দফতরে আবেদন করেও কোন ফল পাচ্ছি না। অধ্যক্ষ, শিক্ষক, কারনিক ও অফিস সহায়কসহ ৪৪ জনের পদ রয়েছে। বর্তমানে ২২ জনের পদ শুন্য রয়েছে। দ্রুিত চাহিদামত শিক্ষক, করনিক ও অফিস সহায়ক না থাকায় কলেজের শিক্ষা কার্যক্রম চরমভাবে ব্যহত হচ্ছে। 

  • সর্বশেষ