শিরোনাম

প্রকাশিত : ২৬ মে, ২০২২, ০৩:০১ দুপুর
আপডেট : ২৬ মে, ২০২২, ০৩:০১ দুপুর

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

ভারতে কারাগারে বন্দি ৩২ জেলের মুক্তি মেলেনি ৩ মাসেও

৩২ জেলে ভারতে কারাগারে

কল্যাণ বড়ুয়া, বাঁশখালী: [২] বঙ্গোপসাগরে মাছ ধরতে গিয়ে সাড়ে তিন মাসেও বাড়ি ফেরেননি চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলার শিলকূপ ইউনিয়নের ৩২ জেলে। গত ১৩ ফেব্রুয়ারি বঙ্গোপসাগরে মাছ ধরতে গিয়ে বাঁশখালী উপবেজলার শীলকুপ এলাকার ৩২ জেলে সীমানা অতিক্রম করায় ভারতীয় কোস্ট গার্ডের হাতে আটক হয়। এরপর থেকে দীর্ঘ সময় পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তিদ্বয় সাড়ে তিন মাসেও না ফেরায় চরম অর্থাভাবে কষ্টে দিন কাটছে স্বজনরা।

[৩] ফিশিং বোট মালিক নুরুল আবছার বলেন, গত ৮ ফেব্রুয়ারি তারা সাগরে ৩২ জেলে সহ সাগরে মাছ ধরতে যায়। সাগরে ঘন কুয়াশায় পথ হারিয়ে ভারতীয় জলসীমায় ঢুকে পড়ে ১৩ ফেব্রুয়ারি। অবৈধভাবে সীমান্তে প্রবেশ করায়ন ট্রলারসহ ৩২ জেলেকে আটক করে ভারতীয় কোস্টগার্ড। ৩২ জেলে বর্তমানে ভারতের দক্ষিণ চব্বিশ পরগনার ফ্রেজারগঞ্জ নামখানা কারাগারে বন্দি আছেন বলে শুনেছি। তাদের মুক্তির জন্য আমি কাজ করে যাচ্ছি।

[৪] শীলকুপের নাজিম উদ্দিন বলেন, আটক জেলের অবৈধভাবে প্রবেশ করায় ভারতের আদালতে মামলা চলছে। ভারতীয় দূতাবাসেও জেলেদের মুক্তির বিষয়ে সহায়তা চেয়ে আবেদন জানানো হয়েছে। বাংলাদেশ থেকে আবুল বাশার ভারতীয় আদালতে আটক জেলেদে মুক্তির জন্য সার্বক্ষণিক কাজ করে যাচ্ছে। 

[৫] ভারতের কারাগারে আটককৃত জেলেরা হলেন: শীলকূপ ইউনিয়নের মনকিচর গ্রামের ওমর মিয়ার ছেলে শাহ আলম, ওমর কাজীর ছেলে ছাবের, আলী আকবরের ছেলে সৈয়দুল আলম, ওমর কাজীর ছেলে হাবিবুর রহমান, মোস্তফা আলীর ছেলে কামাল হোসেন, হাবিব উল্লাহর ছেলে জিয়াউর রহমান, কামাল উদ্দীনের ছেলে দিদারুল আলম ও জয়নাল আবেদিন, মুহাম্মদ আলীর ছেলে নুর হোসেন ও আজগর হোসেন, সিকান্দার আলীর ছেলে আলী আহমদ, মোস্তফা আলীর ছেলে জাফর আহমদ, মো. ইউসুফের ছেলে আকতার হোসেন, হানিফের ছেলে কবির হোসেন, হাসান আলীর ছেলে আবুল হোসেন, আহছান আলীর ছেলে নুরুল ইসলাম, ওমর কাজীর ছেলে জয়নাল উদ্দীন, আবুল কাশেমের ছেলে মাহমুদুল ইসলাম, আবুল কাশেমের ছেলে ওবাইদুল হক, আলী আহমদের ছেলে মো. আবদুল্লাহ, হারুনুর রশিদের ছেলে শামসুল আলম, নবী হোসেনের ছেলে সাদ্দাম হোসেন, শাহ আলমের ছেলে মো. ফারুক, আবদুল আজিজের ছেলে মো. জোনাইদ, লাল মিয়ার ছেলে আবদুল আজিজ, নুরুচ্ছফার ছেলে আহমদ নুর, সৈয়দ নুরের ছেলে আরিফ উল্লাহ, আবদুস সালামের ছেলে হোসেন আহমদ, মোস্তফা আলীর ছেলে নুরুল আলম, নজির আহমদের ছেলে জসীম উদ্দীন এবং আমির আমজার ছেলে মো. ইয়াছিন। 

[৬] বাঁশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. কামাল উদ্দিন বলেন, ‘বাঁশখালীর ৩২ জেলে সাগরে মাছ ধরতে গিয়ে ভুলবশত ভারতে জলসীমায় ঢুকে যায়। এরপর তাদের সে দেশের কোস্টগার্ড আটক করে নিয়ে যায়। এমন তথ্য দিয়ে ট্রলার মালিক নুরুল আবছার থানায় একটি জিডি করেছিলেন। এ জিডি মূলে তারা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন স্থানে যোগাযোগ করে বর্তমানে তারা ভারতের জেলে আটক নিশ্চিত হয়ে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে তাদের দেশে ফিরিয়ে আনতে সকল ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ হচ্ছে বলে তিনি জানান।

[৭] বাঁশখালী উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাইদুজ্জামান চৌধুরী বলেন, ভারতে আটক ৩২ জেলেদের তালিকা করে তা চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসকের কাছে পাঠানো হয়েছে। যেহেতু বিষয়টি দুটি দেশের অভ্যান্তরীন ব্যাপারে সে ব্যাপারে রাষ্ট্রীয় ভাবে ফিরিয়ে আনতে কাজ চলছে বলে তিনি জানান। 

[৮] এদিকে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে আটক জেলেদের পরিবারে খাদ্য সহায়তা সহ সার্বক্ষনিক খোঁজ খবর নেওয়া হচ্ছে বলে তিনি জানান। সম্পাদনা: হ্যাপি

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়