শিরোনাম

প্রকাশিত : ২৭ জুন, ২০২২, ০৯:৪৪ সকাল
আপডেট : ২৮ জুন, ২০২২, ১১:১০ দুপুর

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

কমেছে নৌ-যাত্রী, অর্ধেকেরও বেশি কেবিন-ডেক ফাঁকা

কমেছে নৌ-যাত্রী

মাজহারুল ইসলাম: পদ্মা সেতু দিয়ে যানবাহন চলাচল শুরুর পর এর প্রভাব পড়েছে নৌ-পথে চলাচলকারী যাত্রী ও লঞ্চ মালিকদের ওপর। রাজধানীর সদরঘাট লঞ্চ টার্মিনালে কমেছে লঞ্চ এবং যাত্রীর সংখ্যা। একই অবস্থা রাজধানীর বাইরেও। 

বিগত দিনে লঞ্চে কেবিন বা সোফা পেতে তদবির করতে হতো। ডেকে আসন রাখতে বিকেলে এসে অপেক্ষা করতে হতো। কিন্তু রোববার (২৬ জুন) বরিশাল নদী বন্দরের চিত্রটি ছিল ঠিক তার উল্টো।  নোঙর করে থাকা ছয়টি বিলাসবহুল লঞ্চের সামনে যাত্রীদের উপচে পড়া ভিড় দেখা যায়নি। বরং যাত্রীদের উদ্দেশ্য করে ছুটে যেতে দেখা গেছে লঞ্চ কর্মচারীদের।

যাত্রীরা বলছেন, সড়ক পথে যাতায়াত সহজ আর ক্লান্তিহীন হওয়ায় লঞ্চের কিছু সংখ্যক যাত্রী কমতে পারে। যদিও লঞ্চ কর্তৃপক্ষ বলছে, যাত্রী কমেনি, অন্যান্য সময়ের মতই যাত্রীদের চাপ রয়েছে।

বরিশাল নদী বন্দর কর্মকর্তা ও বিআইডবিøউটিএর যুগ্ম পরিচালক মোস্তাফিজুর রহমান জানান, লঞ্চে কিছু সংখ্যক যাত্রী কমতে পারে। তবে এখনই তা নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না। কেবিনের যাত্রী কমতে পারে। তবে ডেকের যাত্রী কমার সম্ভাবনা নেই। তবে যাত্রী ধরে রাখতে মালিকরা ভাড়া কমানোর বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে পারেন।

ঢাকা-বরিশাল-বরগুনার লঞ্চ এমভি রয়েল ক্রুজের সুপারভাইজার মিজানুর রহমান বলেন, পদ্মা সেতুর প্রভাব তো পড়বেই। যাত্রী আগের তুলনায় কিছুটা কমেছে। সামনে, আরও বেশি প্রভাব পড়তে পারে। 

বরিশালের যাত্রী সেলিনা বলেন, আসলে পদ্মা সেতু হয়ে যেতে গেলে বাস ভাড়া পড়বে ৭০০-৭৫০ টাকা। যেখানে লঞ্চের ডেকে আমরা ৩৫০-৪০০ টাকায় যেতে পারছি। ফলে, ইচ্ছে থাকলেও আমরা বাসে যেতে পারব না। আমাদের আর্থিক অবস্থা তেমন ভাল না।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহণ কর্তৃপক্ষের (বিআইডব্লিউটিএ) ট্রাফিক কন্ট্রোল রুমের এক কর্মকর্তা বলেন, প্রাথমিকভাবে আমরা ধারণা করছি নদীপথে বেশ ভাল পরিমাণে যাত্রী কমতে পারে। তবে, সড়কপথে জট, তুলনামূলক বেশি ভাড়াসহ অন্যান্য কারণে কিছুটা কমলেও স্বাভাবিকই থাকতে পারে যাত্রী সংখ্যা। মূলত ঢাকা থেকে বরিশাল-শরিয়তপুর রুটে যাত্রী বেশি কমেছে। এছাড়া বরগুনা ও অন্যান্য রুটের যাত্রী মোটামুটি ভালই আছে এখনো।

বিআইডব্লিউটিএ'র যুগ্ম পরিচালক আলমগীর কবির বলেন, পদ্মা সেতু দিয়ে বাস চলাচলের ফলে তার প্রভাব তো নৌ-রুটে পড়বেই। এতে কোন সন্দেহ নেই। তবে, ঠিক এই মূহূর্তে বোঝা কঠিন সেটা কত শতাংশ হবে। আমরা ধারণা করছি, আনুমানিক ২০ শতাংশ যাত্রী কমবে। বাংলানিউজ২৪ ও ঢাকা পোস্ট

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়