শিরোনাম

প্রকাশিত : ২৩ জুন, ২০২২, ০৯:৩৭ রাত
আপডেট : ২৩ জুন, ২০২২, ০৯:৩৭ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

আসামে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি, ২৪ ঘণ্টায় আরো ১২ মৃত্যু

উদ্ধারকাজে নেমেছে ভারতের সেনাবাহিনী।

মামুন হোসেন : ভারতের আসামের বন্যা পরিস্থিতির আরো অবনতি হয়েছে। ২৪ ঘণ্টায় প্রাণ গেছে ১২ জনের। এ নিয়ে রাজ্যটিতে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১০১ জন। চলমান এ বন্যায় পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন আসামের ৩৫টির জেলার মধ্যে ৩২টি জেলার ৫৫ লাখের বেশি বাসিন্দা। প্লাবিত হয়েছে সাড়ে ৫ হাজার গ্রাম। পানিতে ভেসে গেছে ৬০ হাজারের বেশি গবাদি পশু। আড়াই হাজারের বেশি ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে। ব্রহ্মপুত্র নদের পানি বইছে বিপৎসীমার ওপর দিয়ে। সেইসঙ্গে আছে ভূমিধস। বিভিন্ন মহাসড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যাচ্ছে ভূমিধসের কারণে। টাইমস অব ইন্ডিয়া, এনডিটিভি

আসামের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের (এএসডিএমএ) তথ্যমতে, রাজ্যের বন্যাকবলিত ৩২ জেলার প্রায় ২৬ লাখ লোক ঘর ছেড়ে আশ্রয়কেন্দ্রে থাকতে বাধ্য হচ্ছেন। তবে ত্রাণশিবিরগুলোতে ইতোমধ্যে খাবার এবং বিশুদ্ধ পানির সংকট তৈরি হতে শুরু করেছে। বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন থাকায় মোবাইল নেটওয়ার্কও নেই। বন্যার পানিতে আটকে পড়াদের উদ্ধারে মাঠে নেমেছে ভারতের সেনাবাহিনী।

বন্যা পরিস্থিতি অপরিবর্তিত রয়েছে পার্শ্ববর্তী রাজ্য মেঘালয়েও। রাজ্যটিতে বছরের এ সময়ের গড় বৃষ্টিপাতের তুলনায় অনেক বেশি বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। এতে পরিস্থিতি আরও ভয়াবহ রূপ ধারণ করতে পারে বলেও সতর্ক করা হয়েছে।

বন্যাকবলিত এলাকা পরিদর্শন করে ক্ষতিগ্রস্তদের সব ধরনের সাহায্যের আশ্বাস দিয়েছেন রাজ্যটির মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মা। খুব শিগগিরই যেন তারা সহযোগিতা পান, সে লক্ষ্যে কাজ করার প্রয়োজনীয় নির্দেশনাও দেন মুখ্যমন্ত্রী। বন্যার ক্ষয়ক্ষতি মোকাবেলায় কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে ৩০০ কোটি রুপি চেয়েছেন তিনি।

এদিকে, ভারি বৃষ্টির পূর্বাভাস থাকায় ভারতের মহরাষ্ট্র এবং গোয়ায় ২৫ জুন পর্যন্ত অরেঞ্জ অ্যালার্ট জারি করেছে আবহাওয়া বিভাগ। দক্ষিণাঞ্চলের তামিল, কর্নাটক ও কেরালাতেও ভারি বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস রয়েছে।

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়