শিরোনাম
◈ আমি আওয়ামী লীগে ছিলাম, আছি ও থাকব: সোহেল তাজ ◈ রুশ তেল পরিশোধনের পর যুক্তরাষ্ট্রে রফতানি করছে ভারত, ক্ষুব্ধ যুক্তরাষ্ট্র ◈ মুক্তিযুদ্ধের পরাজিত অপশক্তির ষড়যন্ত্র থেমে থাকেনি: জয় ◈ চকবাজারে পলিথিন কারখানায় আগুন নিয়ন্ত্রণে ◈ টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা ◈ মডার্না-অ্যাস্ট্রাজেনেকা গ্রহীতারা দ্বিতীয় ডোজে পাবেন ফাইজার ◈ শ্বাসরোধ করেই সেই শিক্ষিকার মৃত্যু ◈ বাংলাদেশকে নিয়ে দেশে-বিদেশে ষড়যন্ত্র চলছে : পররাষ্ট্রমন্ত্রী ◈ বঙ্গবন্ধু হত্যার প্রধান সুবিধাভোগী জিয়া: তথ্যমন্ত্রী ◈ জাতির পিতার স্বপ্ন পূরণ করছেন শেখ হাসিনা: ওবায়দুল কাদের

প্রকাশিত : ২৭ মে, ২০২২, ১০:৩৩ দুপুর
আপডেট : ২৭ মে, ২০২২, ১১:০০ দুপুর

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

অসমের ‘ইউডিএফ’ বিধায়ক রফিকুল ইসলাম

ভারতে মাদ্রাসা সম্পর্কে মুখ্যমন্ত্রীর কোনও জ্ঞান নেই

রাশিদুল ইসলাম : [২] ভারতের বিজেপিশাসিত অসমের ‘ইউডিএফ’ বিধায়ক রফিকুল ইসলাম বলেছেন, মাদ্রাসা সম্পর্কে মুখ্যমন্ত্রী হিমন্তবিশ্ব শর্মার কোনও জ্ঞান নেই। মুখ্যমন্ত্রী সম্প্রতি ‘মাদ্রাসা’ শব্দ বিলুপ্ত হওয়া উচিত এবং মাদ্রাসায় পড়ে ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার হওয়া যায় না বলে মন্তব্য করেছিলেন।

[৩] বৃহস্পতিবার গণমাধ্যমে প্রকাশ, এ প্রসঙ্গে আসামের বিধায়ক ড. হাফিজ রফিকুল ইসলাম বলেছেন, তার ওই দাবির পিছনে কোনও প্রমাণ নেই। অনেক মাদ্রাসার ছাত্র ইতোমধ্যে জীবনের বিভিন্ন দিকে সফল হয়েছেন। তিনি বলেন, ‘আরবি ভাষায় মাদ্রাসা শব্দের অর্থ হচ্ছে স্কুল। স্কুল কখনও বন্ধ করা যায় না। ‘গুরুকুল’ খোলা রয়েছে। ‘সৎ সঙ্গ’ খোলা রয়েছে। জৈন ও খ্রিস্টানদের সবকিছু খোলা রয়েছে। সে রকম মুসলিমদেরও ধর্মীয় শিক্ষাকেন্দ্র আছে এবং থাকবে। ভারতীয় সংবিধানের ২৪ ও ২৫ ধারা অনুসারে নিজ নিজ ধর্ম শিক্ষা ও পালনের অধিকার রয়েছে। মাদ্রাসা সম্পর্কে মুখ্যমন্ত্রী হিমন্তবিশ্ব শর্মার কোনও জ্ঞান নেই।’ 

[৪] মুখ্যমন্ত্রী হিমন্তবিশ্ব শর্মাকে কটাক্ষ করে তিনি বলেন, ‘উনি আরএসএসকে সন্তুষ্ট করার জন্য অবাস্তব কথা বলেছেন, এটা ব্যর্থ চেষ্টা। মুখ্যমন্ত্রী শিক্ষিত মানুষ হলেও মাদ্রাসা সম্পর্কে তিনি হয়ত কম অধ্যায়ন করেছেন। মাদ্রাসায় পড়লে ডাক্তার, ইঞ্জিনয়ার হওয়া যায় না এটা ভুল কথা।’

[৫] বিধায়ক রফিকুল ইসলাম নিজেও মাদ্রাসার ছাত্র ছিলেন এবং মাদ্রাসায় পড়াশোনা করে যেসব বিধায়ক, এমপি, মন্ত্রী, ডাক্তার, বিশ্বখ্যাত ব্যবসায়ী ইত্যাদি হয়েছেন তিনি সেসব কথা উল্লেখ করেন। 

[৬] ওই ইস্যুতে মজলিশ-ই-ইত্তেহাদুল মুসলেমিন (মিম) প্রধান ব্যারিস্টার আসাদউদ্দিন ওয়াইসি এমপি বলেন, ‘মাদ্রাসায় ইসলামী শিক্ষা দেওয়ার পাশাপাশি বিজ্ঞান, গণিত, সমাজবিজ্ঞান ইত্যাদি পড়ানো হয়। যখন সঙ্ঘ (আরএসএস) ব্রিটিশের এজেন্ট হিসেবে কাজ করছিল, তখন অনেক মাদ্রাসা দেশের স্বাধীনতা আন্দোলনে যুক্ত ছিল। মুখ্যমন্ত্রীর মন্তব্যে তার হীনমন্যতা প্রকাশ পেয়েছে। মুসলিমরা ভারতকে সমৃদ্ধ করেছেন, আগামীতেও করে যাবেন’ বলে ওয়াইসি মন্তব্য করেন। অন্যদিকে, মাদ্রাসা নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর সাম্প্রতিক মন্তব্যের তীব্র সমালোচনা করেছেন বিশিষ্ট আলেম, মাদ্রাসা খানকায়ে মদনির মুখ্য পৃষ্ঠপোষক মাওলানা আহমদ সায়িদ গোবিন্দপুরি। তিনি মাদ্রাসা শিক্ষার সুফল নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে বিতর্কে বসার চ্যালেঞ্জ জানিয়েছেন।

[৭] মাওলানা সায়িদ বলেন, ‘যুগ যুগ ধরে মাদ্রাসা শিক্ষা ছিল, আছে এবং থাকবে। শুধু ভারত নয়, বিশ্বের কোনও শক্তি মাদ্রাসা বন্ধ করতে পারবে না। কিয়ামত পর্যন্ত ভারতসহ গোটা বিশ্বে মাদ্রাসা শিক্ষা চালু থাকবে। মাদ্রাসা শিক্ষা নিয়ে দেশের লাখ লাখ আলেম দেশের স্বাধীনতা আন্দোলনে শহীদ হয়েছেন। মাদ্রাসা শিক্ষা নিয়ে এ দেশের হাজার হাজার মানুষ বৈজ্ঞানিক, ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার, প্রবক্তাসহ প্রশাসনিক উচ্চপদে আসীন ছিলেন, বর্তমানেও আছেন, ভবিষ্যতেও থাকবেন বলেও মন্তব্য করেন বিশিষ্ট আলেম, মাদ্রাসা খানকায়ে মদনির মুখ্য পৃষ্ঠপোষক মাওলানা আহমদ সায়িদ গোবিন্দপুরি। 

  • সর্বশেষ