শিরোনাম
◈ ‘করোনা বাড়লেও শিক্ষা-প্রতিষ্ঠান বন্ধের পরিকল্পনা নেই’ ◈ গ্রামীণ টেলিকমের শ্রমিক-কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি-সম্পাদক গ্রেপ্তার ◈ বায়তুল মোকাররমে ঈদের প্রথম জামাত সকাল ৭টায়, হবে ৫টি ◈ ২ হাজার ৭১৬ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে এমপিওভুক্তির ঘোষণা  ◈ ‘সারাদেশে যে লোডশেডিং চলছে তা খুব বেশি দিন থাকবে না’ ◈ ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠন করায় বিদেশিরা বিনিয়োগে আগ্রহী হচ্ছে: প্রধানমন্ত্রী ◈ পচেত্তিনোর বিদায়, পিএসজির নতুন কোচ গালতিয়ে ◈ ঈদে ফিলিস্তিনদের জন্য মসজিদুল আকসা খুলে দিচ্ছে ইসরায়েল ◈ ইয়েমেনের অস্ত্রাগারে বোমা হামলায় নিহত ৬ ◈ প্রভাবশালী ২ ব্রিটিশ মন্ত্রীর পদত্যাগ, সঙ্কটে বরিস সরকার

প্রকাশিত : ২১ মে, ২০২২, ০৫:৩৪ বিকাল
আপডেট : ২১ মে, ২০২২, ০৭:০৯ বিকাল

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

এমন ‘প্ররোচনামূলক’ পোস্ট দেওয়ায় গ্রেফতার

ভারতে মসজিদের ভিতরে শিবলিঙ্গ, জামিন পেলেন অধ্যাপক রতন লাল

রাশিদুল ইসলাম : [২] সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির পরিবেশ নষ্ট করার অভিযোগে ওই অধ্যাপককে গ্রেফতার করে পুলিশ। দিল্লির একটি আদালত শনিবার দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক রতন লালকে ৫০,০০০ টাকার বন্ড এবং সেই পরিমাণের একটি জামিন প্রদানের জন্য জামিন দিয়েছে। ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস

[৩] দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের ওই অধ্যাপককে গ্রেফতার করে সাইবার ক্রাইম বিভাগের অফিসাররা। দিল্লির হিন্দু কলেজের ওই অধ্যাপকের বিরুদ্ধে আগেই এফআইআর দায়ের করা হয়েছিল।
[৪] জ্ঞানবাপী মসজিদের ভিতরে ‘শিবলিঙ্গ’ পাওয়া গিয়েছে বলে দাবি করে সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি পোস্ট করেছিলেন ওই অধ্যাপক। সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির পরিবেশ নষ্ট করার অভিযোগে ওই অধ্যাপককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তিনি ইতিহাস পড়ান। গত মঙ্গলবার সোশ্যাল মিডিয়ায় বারণসীর জ্ঞানবাপী মসজিদের ভিতরের একটি ছবি পোস্ট করে একটি মন্তব্য করেছিলেন তিনি। তার সেই মন্তব্য ঘিরেই ছড়ায় বিতর্ক।

[৪] দিল্লি পুলিশের এক কর্তা জানান, ওই অধ্যাপককে প্রথমে সমন পাঠিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছিল। পরে তাকে গ্রেফতার করা হয়। ডিসিপি (উত্তর) সাগর সিং কলসি অধ্যাপক রতন লালের গ্রেফতার হওয়ার খবর জানিয়েছেন। এদিকে, অধ্যাপক গ্রেফতারের পরপরই প্রতিবাদে সরব হয় বেশ কিছু ছাত্র সংগঠন।

[৫] অল ইন্ডিয়া স্টুডেন্টস অ্যাসোসিয়েশন-সহ বেশ কয়েকটি ছাত্র সংগঠনের পক্ষ থেকে বিক্ষোভ দেখানো হয়েছে। এদিকে, সোশ্যাল মিডিয়ায় তার পোস্টটি ভাইরাল হতেই ওই অধ্যাপককে হুমকি দেওয়ারও অভিযোগ ওঠে। পুলিশের কাছে নিরাপত্তা চেয়েও আবেদন করেছিলেন তিনি।

[৬] দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে অধ্যাপক রতন লাল বুধবার বলেছিলেন, ”আমি এই বিবৃতির জন্য হুমকি এবং অপব্যবহার আশা করিনি। হিন্দুধর্মে ফুলে, রবিদাস এবং আম্বেদকরের সমালোচনার দীর্ঘ ঐতিহ্য রয়েছে। আমি সমালোচনা করিনি, এটি কেবল একটি পর্যবেক্ষণ। আমাদের দেশে যে কোনও বিষয়ে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত লাগে। লোকে কি করবে, মুখে পট্টি লাগিয়ে বসে থাকবে?”

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়