শিরোনাম

প্রকাশিত : ১৮ মে, ২০২২, ০৮:২৯ রাত
আপডেট : ১৮ মে, ২০২২, ০৯:০৭ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

পুতিনের তলপেটে অস্ত্রোপচার

সাজিয়া আক্তার: শারীরিক অসুস্থতা সম্পর্কে তীব্র জল্পনা-কল্পনার মাঝে সম্প্রতি রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন তার তলপেট থেকে তরল অপসারণের জন্য একটি অস্ত্রোপচার করেছেন। বুধবার ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম সানডে এক্সপ্রেসের এক প্রতিবেদনে এই দাবি করা হয়েছে। ঢাকা পোস্ট

রাশিয়ার ফরেইন ইনটেলিজেন্স সার্ভিসের সাথে সংশ্লিষ্ট টেলিগ্রাম চ্যানেল ‘জেনারেল এসভিআর’র বরাত দিয়ে সানডে এক্সপ্রেস বলেছে, ‘কোনও ধরনের জটিলতা ছাড়াই পুতিনের এই অস্ত্রোপচার সফল হয়েছে।’

তবে গত ১২ থেকে ১৩ মের এক রাতে করা এই অস্ত্রোপচার ক্যানসারের সাথে যুক্ত নয়, বলে প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে। অস্ত্রোপচারের কারণে পুতিন সরকারি একটি নির্ধারিত বৈঠকেও অংশ নিতে পারেননি। আগে ভিডিওতে ধারণ করা পুতিনের বার্তা সেই বৈঠকে প্রচার করা হয়।

ব্রিটিশ এই সংবাদ মাধ্যম টেলিগ্রাম বার্তার কিছু অংশ অনুবাদ করে প্রকাশ করেছে। যেখানে কর্মকর্তারা বলেছেন, ‘প্রেসিডেন্টের জন্য সুপারিশ করা এই অস্ত্রোপচারের প্রক্রিয়াটি অস্ত্রোপচার নয়। এই অস্ত্রোপচার এখনও সম্পন্ন করা হয়নি।’

বুধবার মার্কিন দৈনিক দ্য নিউইয়র্ক পোস্টের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পুতিনের অস্ত্রোপচার এবং অস্ত্রোপচার-পরবর্তী পুনরুদ্ধারের পরের দিন ‘ডিপফেইক’ প্রযুক্তি ব্যবহার করে রাশিয়ার নিরাপত্তা পরিষদের একটি নির্ধারিত বৈঠকের ভিডিওতে তার উপস্থিতি দেখানো হয়।

পুতিনের অস্ত্রোপচারের বিষয়ে সাবেক রুশ গোয়েন্দা কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট জেনারেল ভিক্টর মিখাইলোভিচ (ছদ্মনাম) পরিচালিত টেলিগ্রাম চ্যানেল জেনারেল এসভিআরের দাবির সত্যতা যাচাই করা সম্ভব হয়নি।

ইউক্রেন যুদ্ধের ডামাডোলের মাঝে গত কয়েক সপ্তাহ ধরে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের অসুস্থতার গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে। ভ্লাদিমির পুতিন ‘গুরুতর অসুস্থ’ বলে চলতি সপ্তাহে দাবি করেছেন ব্রিটেনের সাবেক গুপ্তচর ক্রিস্টোফার স্টিলে।

তিনি বলেছেন, ইউক্রেনে যা ঘটছে তা পুতিনের অসুস্থতার একটি ফল। তিনি ঠিক কী ধরনের অসুস্থতায় ভুগছেন এবং তা নিরাময়যোগ্য অথবা পরম কি-না সেটি পরিষ্কার নয়। তবে আমি মনে করি এটি অবশ্যই হিসেব-নিকেশের অংশ।

এদিকে, রাশিয়ান প্রেসিডেন্টের সাথে ঘনিষ্ঠভাবে সংশ্লিষ্ট একজন ধনকুবেরকে একটি অডিও রেকর্ডে বলতে শোনা যায়, পুতিন ব্ল্যাড ক্যানসারের কারণে গুরুতর অসুস্থ। রেকর্ডকৃত বার্তায় অজ্ঞাত ওই ধনকুবের পশ্চিমা পুঁজিবাদী একজন উদ্যোক্তার সাথে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করেন।

গত সপ্তাহে রাশিয়ার বিজয় দিবস উদযাপনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত হওয়ার পর পুতিনের শারীরিক অবস্থা নিয়ে নতুন করে গুঞ্জন তৈরি হয়। অনুষ্ঠানের ছবিতে রাশিয়ার প্রেসিডেন্টকে অত্যন্ত দুর্বল দেখা যায় এবং সবুজ কাপড়ে ঢেকে রাখা তার হাঁটু অনেক দর্শকের নজর কাড়ে।

মস্কোর রেড স্কয়ারে সামরিক কুচকাওয়াজ উপভোগের জন্য দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের প্রবীণ এবং জ্যেষ্ঠ গণ্যমান্য ব্যক্তিদের মাঝে বসে থাকতে দেখা যায় পুতিনকে। সেই প্রবীণদের মাঝে একমাত্র পুতিনকে ঘন ঘন কাঁশি দিতে দেখা যায়। তুলনামূলক মৃদু ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস আবহাওয়া মোকাবিলার জন্য অতিরিক্ত কাপড় পরিহিত দেখা যায় তাকে।

সরকারি গুরুত্বপূর্ণ কর্মকর্তাদের সাথে বৈঠকের সময় রুগ্ন চেহারা ও অস্বাভাবিক উদাসীন দেখা যায় ৭০ বছর বয়সী পুতিনকে
মার্কিন ম্যাগাজিন নিউ লাইনস ওই রেকর্ডিং হাতে পেয়েছে। এতে ধনকুবেরকে বলতে শোনা যায়, পুতিনের পিঠে যে অস্ত্রোপচার করা হয়েছিল তা কোনো না কোনোভাবে তার ব্ল্যাড ক্যানসারের সাথে সংশ্লিষ্ট। অজ্ঞাত এই ধনকুবের বলেন, অস্ত্রোপচারের সময় প্রেসিডেন্ট ‌পাগল হয়েছিলেন।

সম্প্রতি ১২ মিনিটের একটি ভিডিও টুইটারে শেয়ার করা হয়। পুরো ভিডিওতে পুতিনকে টেবিল শক্তভাবে আঁকড়ে ধরে থাকতে দেখা যায়।

রুশ ওই ধনকুবের বলেন, ‘আমরা সবাই পুতিনের মৃত্যু কামনা করি। তিনি রাশিয়ার অর্থনীতি, ইউক্রেনের অর্থনীতি এবং অন্যান্য অনেক দেশের অর্থনীতি একেবারে ধ্বংস করে দিয়েছেন। একেবারে ধ্বংস করেছেন। সমস্যা তার মাথায়। একজন উন্মাদ মানুষ পৃথিবীকে ওলট-পালট করে দিতে পারে।’

অন্যদিকে, রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ক্যান্সার এবং অন্যান্য রোগে আক্রান্ত বলে দাবি করেছেন ইউক্রেনের সামরিক বাহিনীর শীর্ষ একজন কর্মকর্তা। স্কাই নিউজকে তিনি বলেছেন, পুতিনের মানসিক ও শারীরিক অবস্থা অত্যন্ত খারাপ এবং তিনি খুবই অসুস্থ।

সম্প্রতি প্রকাশ্যে এবং সরকারি গুরুত্বপূর্ণ কর্মকর্তাদের সাথে বৈঠকের সময় রুগ্ন চেহারা ও অস্বাভাবিক উদাসীন দেখা যায় ৭০ বছর বয়সী পুতিনকে। পরে পারকিনসন-সহ ক্যান্সার এবং অন্যান্য গুরুতর রোগে তিনি আক্রান্ত হয়েছেন বলে গুজব ছড়িয়ে পড়ে।

চলতি মাসের শুরুর দিকে টেলিগ্রাম চ্যানেল ‘জেনারেল এসভিআর’র বরাত দিয়ে নিউইয়র্ক পোস্টের প্রতিবেদনে বলা হয়, পুতিন ক্যানসারের অস্ত্রোপচার করতে যাচ্ছেন। অস্ত্রোপচারের সেই সময়ে সাময়িকভাবে দেশটির কট্টরপন্থী সাবেক পুলিশ প্রধান নিকোলাই প্যাটরুশেভের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর করতে পারেন তিনি।

সেই চ্যানেলে পোস্ট করা একটি ভিডিওতে তিনি দাবি করেন, অস্ত্রোপচারের প্রক্রিয়া চলাকালীন এবং পরে প্রেসিডেন্ট পুতিন রাশিয়ার সরকারের নিয়ন্ত্রণ রুশ ফেডারেল পুলিশের নিরাপত্তা পরিষদের প্রধান নিকোলাই প্যাটরুশেভের কাছে হস্তান্তর করবেন।

সম্প্রতি রাশিয়ান অনুসন্ধানী গণমাধ্যম দ্য প্রজেক্টের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রাশিয়ার শক্তিশালী রাষ্ট্রনেতা ভ্লাদিমির পুতিন গত কয়েক বছরে একজন ক্যানসার চিকিৎসকের কাছে অন্তত ৩৫ বার গেছেন। তিনি নিজের স্বাস্থ্যের ব্যাপারে এতটাই উন্মাদ হয়েছেন যে, তিনি অপ্রচলিত এবং আদিম থেরাপিও নিয়েছেন।

ক্যানসার নিরাময়ের আশায় হরিণের শিং যখন নরম ও রক্তপিণ্ডের মতো থাকে তখন তা কেটে সংগৃহীত রক্তে পুতিন গোসল করেছেন, এমন কথাও বলা হয়ে থাকে বলে দাবি করেছে গণমাধ্যমটি। কাজাখস্তান এবং মঙ্গোলিয়া সীমান্তের কাছে রাশিয়ার আলতাই অঞ্চলে রোগমুক্তি পাওয়ার আশায় হরিণের শিংয়ের রক্তে গোসল করার কুসংস্কার প্রচলিত আছে।

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়