শিরোনাম

প্রকাশিত : ০৫ আগস্ট, ২০২২, ০১:৫১ দুপুর
আপডেট : ০৫ আগস্ট, ২০২২, ০১:৫১ দুপুর

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

মার্কিন কর্মকর্তাদের তাইওয়ান যাওয়া আটকাতে পারে না চীন!  

স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি

ইমরুল শাহেদ: এ কথা বলেছেন, মার্কিন কংগ্রেসে নিম্ন কক্ষের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি। তিনি চীনের রাঙা চোখ উপেক্ষা করেই গত বুধবার তাইওয়ান সফর করেন। এ সময় তার সফরসঙ্গী ছিলেন আরো নয়জন কর্মকর্তা। তাইওয়ান ছাড়াও এশিয়ার আরো চারটি দেশ সফর করেছেন ন্যান্সি পেলোসি। সেগুলো হলো সিঙ্গাপুর, মালয়েশিয়া, দক্ষিণ কোরিয়া ও জাপান। জাপান টাইমস

জাপান থেকেই পেলোসি তার এশিয়া সফর শেষ করছেন। তাইওয়ান উপত্যকায় শান্তি ও স্থিতিশীলতা বজায় রাখতে জাপান ও যুক্তরাষ্ট্র একমত হয়েছে। যদিও তাইওয়ান ঘিরে চীনের সামরিক মহড়ায় পাঁচটি ক্ষেপনাস্ত্র পড়েছে জাপানের এক্সক্লুসিভ ইকোনোমিক জোনে (ইইজেড)। জাপান টাইমস জানিয়েছে, এ ব্যাপারে প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে জাপানের প্রধানমন্ত্রী ফুমিও কিশিদা বলেছেন, এটা তাদের জাতীয় নিরাপত্তার জন্য হুমকির মতো। 

চীনের এই আচরণের প্রেক্ষিতে আসন্ন আশিয়ান সম্মেলনের পার্শ্ব আলোচনায় চীন ও জাপানের পররাষ্ট্র মন্ত্রীদের যে বৈঠক হওয়ার কথা ছিল সেটাও প্রত্যাহার করা হয়েছে। 

এসব সমস্যা মাথায় রেখেই পেলোসি বলেছেন, মার্কিন কর্মকর্তাদের তাইওয়ান যাওয়া বন্ধ করতে পারবে না চীন। এশিয়া সফরের শেষাংশে জাপানের টোকিও শহরে এই মন্তব্য করেন পেলোসি। গত ২৫ বছরে তিনিই প্রথম হাউস স্পিকার হিসেবে তাইওয়ান ভূখণ্ডে পা রাখেন।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, পেলোসি টোকিওতে তাইওয়ানের গণতন্ত্রের প্রশংসা করে বলেছেন যে চীনের হুমকি-ধামকি সত্তে¡ও এশিয়ার আঞ্চলিক সংহতির ক্ষেত্রে মার্কিন অবস্থানে কোনো পরিবর্তন আসবে না।   

এর আগে পেলোসির তাইওয়ান যাওয়া নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রকে রীতিমতো হুমকিই দেয় চীন। তারা পরিষ্কার জানিয়েছিল, পেলোসি যদি তাইওয়ান সফরে যান তবে তার মূল্য চুকাতে হবে যুক্তরাষ্ট্রকে। 

তাইওয়ানকে বরাবরই নিজেদের অংশ মনে করে চীন। সে দেশে পেলোসির সফরকে উস্কানি হিসেবেই দেখছে তারা। বেইজিংয়ে এক সাংবাদ সম্মেলনে চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র হুয়া চুনয়িং বলেন, ‘চীনের সার্বভৌমত্বের নিরাপত্তা স্বার্থ ক্ষুণœ হলে তার দায়িত্ব নিতে হবে যুক্তরাষ্ট্রকে, মূল্য চুকাতে হবে তাদেরই।’ 

চীন নিজেদের বলে দাবি করলেও, তাইওয়ান নিজেদের স্বাধীন দেশ হিসেবে মনে করে। তাদের সমর্থন জোগাতে মাঝেমধ্যেই মার্কিন কর্মকর্তারা সে দেশ সফর করেন। কিন্তু ন্যান্সি পেলোসির মতো হেভিওয়েট কেউ সা¤প্রতিক কালে তাইওয়ানে যাননি। গত সপ্তাহে জো বাইডেনকে ফোন করে জিনপিং বলেছিলেন, তাইওয়ান ইস্যুতে আগুন নিয়ে খেলছে যুক্তরাষ্ট্র। 

 

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়