শিরোনাম

প্রকাশিত : ০৫ আগস্ট, ২০২২, ১২:১১ দুপুর
আপডেট : ০৫ আগস্ট, ২০২২, ১২:১১ দুপুর

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

দ্রব্যমূল্য বাড়া নিয়ে মোদি সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলনে কংগ্রেস 

মোদি সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলন

ইমরুল শাহেদ: নরেন্দ্র মোদি সরকারের বিরুদ্ধে শুক্রবার দেশব্যাপী আন্দোলনের ডাক দিয়েছে কংগ্রেস। এদিন সকাল থেকেই দিল্লিতে কংগ্রেসের সদর দফতরে জড়ো হন কংগ্রেস কর্মীরা। আন্দোলনের প্রধান কর্মসূচি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাড়ি ঘেরাও। তার আগে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় মিছিল, বিক্ষোভ সমাবেশ করার পরিকল্পনা রয়েছে। কিন্তু দিল্লিতে আন্দোলনের অনুমতি দেয়নি পুলিশ। দিল্লি পুলিশ সরাসরি অমিত শাহের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অধীনে কাজ করে। সূত্রের খবর, বৃহস্পতিবারই কংগ্রেসকে জানিয়ে দেওয়া হয়, রাস্তা আটকে মিটিং-মিছিল করা যাবে না। দি ওয়াল

পরিস্থিতি মোকাবিলায় শহর জুড়ে বিশাল পুলিশ বাহিনী মোতায়েন হয়েছে। কংগ্রেস দফতরও ঘিরে নিয়েছে পুলিশ। এরই মধ্যে কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী সকালে গণমাধ্যমকে মোদি সরকারকে উদ্দেশ্য করে বলেন, ‘মানুষের মৌলিক সমস্যা নিয়ে পার্লামেন্ট বা পার্লামেন্টের বাইরে, কোথাও বিরোধীদের বলতে দেওয়া হচ্ছে না। গণতন্ত্রের অপমৃত্যু দেখতে হচ্ছে আমাদের।’

রাহুলের সঙ্গে সংবাদ সম্মেলনে যোগ দেন রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলট। প্রধানমন্ত্রীর বাসভবন ঘেরাও কর্মসূচিতে কংগ্রেস ওয়ার্কিং কমিটির সদস্যসহ প্রথমসারির নেতাদের যোগ দেওয়ার কথা। রাজস্থানের পাশাপাশি ছত্তীসগড়ের মুখ্যমন্ত্রী ভুপেশ বাঘেলেরও এই কর্মসূচিতে অংশ নেন।

গেহলট বলেন, ‘কেউ কখনও কল্পনাও করতে পারেনি, দেশে এমন অবস্থা হবে যে জিনিসপত্রের দাম বাড়া নিয়ে  মুখ খোলা যাবে না। জিএসটির অপপ্রয়োগের প্রতিবাদ করা যাবে না।’

রাহুলের বক্তব্য, পার্লামেন্টের ভিতরে, বাইরে কোথাও আমাদের কথা বলতে দেওয়া হচ্ছে না। সরকার দু-তিনজন বড় শিল্পপতির স্বার্থে কাজ করছে। তার অভিযোগ, মোদি সরকারের আট বছরের রাজস্বে দেশ ধ্বংস হয়ে গিয়েছে। দেশে গণতন্ত্রের পরিবর্তে একনায়কতন্ত্র কায়েম হয়েছে।

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়