শিরোনাম

প্রকাশিত : ০৭ জুলাই, ২০২২, ০২:২১ দুপুর
আপডেট : ০৭ জুলাই, ২০২২, ০২:২১ দুপুর

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

চীনের সঙ্গে ব্যবসা নিয়ে সকর্তবার্তা মার্কিন ও ব্রিটিশ গোয়েন্দা প্রধানের

মার্কিন ও ব্রিটিশ গোয়েন্দা প্রধান

ইমরুল শাহেদ: দুই দেশের অভ্যন্তরীণ গোয়েন্দা বিভাগের দুই প্রধান লণ্ডনে এক বিরল বিবৃতিতে চীনের অর্থনৈতিক গোয়েন্দাবৃত্তির বিষয়টি উল্লেখ করে যুক্তরাজ্যের এমআই৫ পরিচালক কেন ম্যাককালাম বুধবার বলেছেন, ‘চীন সরকারের ‘সারা বিশ্ব জুড়ে গোপন চাপ’-্এর কারণে ‘সবচেয়ে বেশি চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হই আমরা।’ এ সময় মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআইয়ের পরিচালক ক্রিস রে পশ্চিমা ব্যবসায়ীদের উদ্দেশ্যে বলেছেন, চীন প্রতিযোগিতামূলক বাজারে লাভবান হতে তাদের প্রযুক্তি চুরি করতে বদ্ধপরিকর। আলজাজিরা

চীন এই অভিযোগ ভিত্তিহীন বলে উল্লেখ করেছে। তারা অহেতুক রাজনৈতিক পরিস্থিতি ঘোলাটে করার চেষ্টা করছেন বলে উল্লেখ করেছে চীন। লণ্ডনের ওয়েস্টমিনিসস্টারের টেমস হাউজে তাদের এই বক্তব্য প্রদানের সময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন সরকারি কর্মকর্তা ও ব্যবসায়ীরা। 

ম্যাককালাম বলেছেন, ‘হুমকিটার নির্যাস বুঝা না গেলেও, এটা বাস্তব এবং চাপ সৃষ্টি করে চলেছে। এই নিয়ে আমাদের কথা বলা দরকার এবং সে অনুসারে আমাদের সতর্ক থাকা উচিত।’

টেমস হাউসে আয়োজিত এক কর্মসূচিতে রে বলেন, ‘আমরা দেখতে পাচ্ছি চীন সরকার ধারাবাহিকভাবে আমাদের অর্থনৈতিক এবং জাতীয় নিরাপত্তার জন্য সবচেয়ে গভীর দীর্ঘমেয়াদি বিপদ সৃষ্টি করেছে। এখন বিষয়টি আমরা দু’দেশ মিলে (যুক্তরাষ্ট্র ও ব্রিটেন) ইউরোপ এবং বিশ্বের অন্য মিত্র দেশগুলিকে বোঝানোর চেষ্টা করছি।’ তবে বেইজিংয়ের এই ‘অনৈতিক’ আগ্রাসনের জন্য শি জিনপিং সরকার এবং চীনা

কমিউনিস্ট পার্টিকেই দোষারোপ করেছেন এফবিআই প্রধান। তার কথায়, ‘আমরা চীনের জনগণকে নিশানা করতে চাই না। তারা নিজেরাই নানা অনিয়ম এবং নিপীড়নের শিকার।’ 

যুক্তরাষ্ট্র এবং ইউরোপের শিল্প ও তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থাগুলিকে চীনের সঙ্গে ব্যবসা করার ‘ঝুঁকি’ সম্পর্কে সতর্ক করে তিনি বলেন, ‘যে কোনও সময় আপনাদের প্রযুক্তি চুরি হতে পারে।’

অন্যদিকে, যৌথ সংবাদ সম্মেলনে ব্রিটিশ গোয়েন্দা প্রধান অভিযোগ করেন, কমিউনিস্ট পার্টি পরিচালিত একদলীয় চীনের শাসকেরা যুক্তরাষ্ট্র এবং ইউরোপের গণতান্ত্রিক কাঠামো এবং মুক্ত সংবাদমাধ্যমের সুযোগ নিয়ে অনৈতিকভাবে নিজেদের স্বার্থরক্ষা করতে তৎপর।

  • সর্বশেষ